প্রাপ্তবয়স্কদের স্মৃতিশক্তি এবং চিন্তাভাবনা হ্রাস সমস্যার সমাধানের ক্ষেত্রে প্রোবায়োটিক

উত্তরাপথঃ সারা বিশ্বের জনসংখ্যার বয়স বৃদ্ধির সাথে স্মৃতিশক্তি এবং চিন্তাভাবনা হ্রাস এবং ডিমেনশিয়ার মতো নিউরোডিজেনারেটিভ রোগের প্রকোপ বাড়ছে৷ তাদের এই  সমস্যাগুলি যে কেবল তাদের একার সমস্যা তা নয় ,এটি ধীরে ধীরে পুরো পারিবারিক সমস্যার আকার নেয়।সম্প্রতি বয়স্ক প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে মস্তিষ্কের কার্যকারিতাকে পুনরুদ্ধার করার জন্য গবেষকদের মধ্যে কার্যকর কৌশল খোঁজার আগ্রহ বাড়ছে।বর্তমানে বেশীরভাগ গবেষক মস্তিস্কের স্বাস্থ্য উদ্ধারের ক্ষেত্রে প্রোবায়োটিকের সম্ভাব্য ভূমিকা নিয়ে গবেষণা করছেন ।

এখন খুব স্বাভাবিকভাবেই একটি প্রশ্ন আসে প্রোবায়োটিক কি? কেনই বা গবেষকরা মস্তিস্কের স্বাস্থ্য উদ্ধারের ক্ষেত্রে প্রোবায়োটিকের ভূমিকা নিয়ে গবেষণা করছেন । প্রোবায়োটিক হল এক বিশেষ প্রকার উদ্ভিদ ফাইবার, যা পরিপাকতন্ত্রের সুস্থতা বজায় রাখতে সাহায্য করে। আমাদের প্রতিদিনের খাদ্য তালিকাতে টকদই, কলা ,রসুন , বাটার মিল্ক প্রোবায়োটিক যুক্ত খাবারের উৎস।

সাম্প্রতিক বৈজ্ঞানিক আবিষ্কারগুলিতে অন্ত্র এবং মস্তিষ্কের মধ্যে জটিল সম্পর্কের উপর আলোকপাত করা হয়েছে। অন্ত্রের মাইক্রোবায়োটা, পাচনতন্ত্রে বসবাসকারী অণুজীবের একটি জটিল সম্প্রদায়, যা  মস্তিষ্কের স্বাস্থ্য সহ বিভিন্ন শারীরিক ক্রিয়াকলাপ নিয়ন্ত্রণে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এই প্রমাণগুলি থেকে বিজ্ঞানীরা সিদ্ধান্তে আসেন যে অন্ত্রের মাইক্রোবায়োটা সংমিশ্রণে পরিবর্তন, যা ডিসবায়োসিস নামে পরিচিত, নিউরোডিজেনারেটিভ রোগের বিকাশ এবং অগ্রগতিতে বাঁধা দান করে

অর্থাৎ প্রোবায়োটিক হল জীবন্ত অণুজীব যা পর্যাপ্ত পরিমাণে খাওয়া হলে, আমাদের পাচনতন্ত্র সহ সামগ্রিক স্বাস্থ্য সুবিধা প্রদান করে। যদিও ঐতিহ্যগতভাবে অন্ত্রের স্বাস্থ্যের সাথে যুক্ত, গবেষণা এখন মস্তিষ্কের স্বাস্থ্যের উপর তাদের সম্ভাব্য প্রভাব উন্মোচন করছে। গবেষণায় দেখা গেছে যে কিছু প্রোবায়োটিক স্ট্রেন অন্ত্রের মাইক্রোবায়োটা গঠনকে সংশোধন করতে পারে, যা বার্ধক্যে স্মৃতিশক্তি এবং চিন্তাভাবনা হ্রাস সংক্রান্ত সমস্যার উন্নতি ঘটায়।

প্রোবায়োটিকগুলি কীভাবে মস্তিষ্কের স্বাস্থ্যকে প্রভাবিত করতে পারে তা ব্যাখ্যা করার জন্য একাধিক প্রক্রিয়ার কথা গবেষকরা বলেছেন । এক্ষেত্রে   একটি মূল প্রক্রিয়া হল সেরোটোনিন এবং ডোপামিনের মতো নিউরোট্রান্সমিটার উৎপাদন , যা  আমাদের মেজাজ নিয়ন্ত্রণ এবং জ্ঞানীয় ফাংশনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। প্রোবায়োটিকগুলি অন্ত্রের সমস্যাগুলিকে দূর করতে সাহায্য করে, সেইসাথে রক্ত ​​​​প্রবাহে ক্ষতিকারক পদার্থের উপস্থিতি  কমায় যা সম্ভাব্যভাবে নিউরোইনফ্লেমেশন এবং মানসিক সমস্যা হ্রাসে অবদান রাখে।

এক্ষেত্রে বেশ কিছু ক্লিনিকাল গবেষনা বয়স্ক প্রাপ্তবয়স্কদের মস্তিস্কের উপর প্রোবায়োটিকের প্রভাবগুলি নিয়ে গবেষণা করছে। একটি র্যান্ডমাইজড নিয়ন্ত্রিত ট্রায়ালে, গবেষকরা দেখেছেন যে একটি নির্দিষ্ট প্রোবায়োটিক স্ট্রেন বয়স্কদের মধ্যে যারা নিয়মিত প্রোবায়োটিক গ্রহণ করেছে তাদের স্মৃতিশক্তিকে উন্নত করেছে । এছাড়া  অন্যান্য বিজ্ঞানীদের গবেষণায় নিয়মিত প্রোবায়োটিক গ্রহণকারী বয়স্ক ব্যক্তিদের স্মৃতিশক্তি, মনোযোগ এবং অন্যান্য মানসিক স্বাস্থের উপর ইতিবাচক প্রভাব দেখা গিয়েছে বলে বিজ্ঞানীদের অভিমত।

যদিও প্রোবায়োটিকস এবং স্মৃতিশক্তি সম্পর্কিত গবেষণা এখনও প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে ।এই বিষয়ে চূড়ান্ত কোনও সিদ্ধান্তে আসার আগে আরও বেশী গবেষণার প্রয়োজন। তবে যদি আমরা আমাদের প্রতিদিনের খাদ্যাভ্যাসের মধ্যে প্রোবায়োটিকের প্রাকৃতিক খাদ্য উৎস বা সম্পূরকগুলিকে অন্তর্ভুক্ত করি, তাহলে বয়স্ক ব্যক্তিদের মস্তিস্কের স্বাস্থ্য বজায় রাখার জন্য একটি সহজ এবং সাশ্রয়ী মাধ্যম হতে পারে।

তবে , এটি গুরুত্বপূর্ণ যে সমস্ত প্রোবায়োটিক স্ট্রেইনের একই কার্যকারিতা নেই। তবে প্রোবায়োটিকের সবচেয়ে কার্যকর স্ট্রেন এবং সর্বোত্তম ডোজ সনাক্ত করার জন্য আরও গবেষণা প্রয়োজন। সেইসাথে অতিরিক্তভাবে, মস্তিষ্কের স্বাস্থ্য বজায় রাখার জন্য স্বাস্থ্যকর খাদ্য, নিয়মিত ব্যায়াম এবং মানসিক উদ্দীপনার মতো অন্যান্য জীবনধারার কারণগুলিকে গুরুত্ব দেওয়া উচিত।

খবরটি শেয়ার করুণ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন


ভোরের শুকতারা

অনসূয়া পাঠকঃ বাস ছাড়তে তখনো কিছুটা সময় বাকি ছিলো, আমি মা বাবার সাথে বাসের ভেতরে জানালার দিকের সিটটায় বসে আছি। এমন সময় দেখি আমাদের পাশের সিটে বসে একজন রবীন্দ্রনাথের সঞ্জয়িতা পড়ছেন, বইটাকে দেখে আমার চোখের সামনে একটা সোনালী ফ্রেমের চশমা পরা মুখ ভেসে উঠলো, চন্দন স্যারের মুখ। বছর পাঁচেক আগের কথা, আমার বাবা তখন জঙ্গলমহল মেদিনীপুরের আমলাশুলির পোষ্টমাষ্টার। দু কিমি দূরেই আমার পিসীমার বাড়ি। ওখানেই আমার হাইস্কুলে পড়াশোনা শুরু। আর যে স্যার আমার মননে সদা জাগরুক , বাংলা সাহিত্যের বটবৃক্ষ বলা যায় যাকে , আমার গল্প যাঁকে নিয়ে সেই চন্দন স্যারকে ওখানেই পাওয়া। ফর্সা গায়ের রঙ, মাথায় ক়াঁচা পাকা চুল , সরু গোঁফ চোখে সোনালী ফ্রেমের চশমা, .....বিস্তারিত পড়ুন

চাকরি ছাড়ার পর ফেরত দিতে হলো অফিসে খাওয়া চায়ের দাম

উত্তরাপথঃ চা কে আমরা যতই বলি স্ট্রিট ফুড বলি না কেন আসলে এটি এমন একটি পানীয় যা বিশ্ব অর্থনীতির বিশ্বায়নকে চালিত করেছিল। দীর্ঘক্ষণ কাজ করার ফলে কর্মীদের মধ্যে ক্লান্তি কিংবা বিরক্তি কাজ করে, তা কাটাতেই প্রায় প্রতিটি সরকারি-বেসরকারি অফিসেই কম বেশি চা-কফি খাওয়ার সুযোগ থাকে। কিন্তু একটি প্রতিষ্ঠানের চাকরি ছাড়ার পর দুই কর্মীকে অফিসে যত কাপ চা খেয়েছেন, তার বিল পরিশোধ করতে হয়েছে। এই বিরল কাণ্ড ঘটেছে চীনে।ঘটনা চীনের আনহুই প্রদেশের। সেখানে দুই কর্মী চাকরি ছেড়েছিলেন। খুবই স্বাভাবিক ঘটনা, আমরা অনেকেই চাকরি ছেড়ে থাকি। কিন্তু পরের ধাপে যা ঘটলো, তা কোনভাবেই স্বাভাবিক নয়। .....বিস্তারিত পড়ুন

টাইফুন ইউন-ইউং এর আজ জাপানের টোকাই অঞ্চলে প্রত্যাশিত ল্যান্ডফল

উত্তরাপথঃ জাপানের জনগণ টাইফুন নং ১৩ যা ইউন-ইউং নামে পরিচিত যা শুক্রবার বিকেলের দিকে টোকাই অঞ্চলে ল্যান্ডফল করবে বলে আশা করা হচ্ছে, যেখানে নাগোয়া অবস্থিত। জাপান ইতিমধ্যে এর আগমনের জন্য নিজেদের আগাম প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। প্রসঙ্গত গত কয়েকদিন ধরে ক্রমশ তীব্রতর হচ্ছিল টাইফুন ১৩। জাপানের আবহাওয়া সংস্থা বৃহস্পতিবার থেকে শনিবার টোকাই এবং কান্টো অঞ্চলে ভারী বৃষ্টিপাতের সতর্কতা জারি করছে, যা পরিবহন ব্যবস্থাকে প্রভাবিত করতে পারে।আবহাওয়া দপ্তরের মতে শুক্রবার সকাল ৬ টা নাগাদ ২৪ঘন্টা বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ইজু দ্বীপপুঞ্জে ২৫০ মিলিমিটার, টোকাই অঞ্চলে ১৫০ মিলিমিটার এবং কান্টো-কোশিন অঞ্চলে ১০০ মিলিমিটার হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। জাপানের আবহাওয়া সংস্থা (জেএমএ) .....বিস্তারিত পড়ুন

ছৌশিল্পী পদ্মশ্রী নেপাল মাহতো ও বিশ্ব মঞ্চে ভারতের লোকনৃত্য

গার্গী আগরওয়ালা মাহাতোঃ আমাদের চারিদিকে বিশ্ব দ্রুত বিকশিত হচ্ছে,পরিবর্তিত হচ্ছে শিল্প সাধনার প্রকৃতি। এই পরিবর্তিত শিল্প সাধনার যুগে আমাদের সেই সমস্ত ব্যক্তিদের স্বীকৃতি দেওয়া এবং সম্মান করা অপরিহার্য যারা সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য সংরক্ষণ ও প্রচারে তাদের জীবন উৎসর্গ করেছেন। এমনই একজন উল্লেখযোগ্য ব্যক্তিত্ব হলেন ছৌশিল্পী পদ্মশ্রী নেপাল মাহতো। নেপাল মাহাতো, যার ছৌনৃত্যের জগতে  দেশে ও বিদেশে অতুলনীয় অবদান তাকে ভারতের চতুর্থ সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মান ‘পদ্মশ্রী´এনে দিয়েছে। নেপাল মাহতোর জন্ম ১৭ জুন ১৯৫৪ সালে পশ্চিমবঙ্গের পুরুলিয়া জেলার বরাবাজার থানার আদাবনা নামে একটি ছোট গ্রামে। তার পিতা স্বর্গীয় নগেন্দ্রনাথ মাহাতো ও মাতা তুষ্ট মাহাতো। .....বিস্তারিত পড়ুন

Scroll to Top