গবেষণা বলছে ভিটামিন-ডি অভাব চোখের Flu এর অন্যতম কারণ

ছবি সৌজন্য – উত্তরাপথ

উত্তরাপথঃ চোখের ফ্লুতে আক্রান্তের সংখ্যা দ্রুত বাড়ছে।আমাদের রাজ্য সহ দেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে চোখের ফ্লু-এর মামলা ক্রমাগত সামনে আসছে।  বর্ষাকালে, চোখের এই সমস্যা বিশেষত চোখে লালচেভাব, জ্বালাপোড়া এবং চুলকানি প্রায়ই মানুষের মধ্যে দেখা যায়। প্রতি বছর বর্ষাকালে চোখের ফ্লুতে আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেলেও গত কয়েক বছরের তুলনায় এ বছর অনেক বেশি লোক আক্রান্ত হচ্ছে বলে খবর।  চোখের ফ্লু যা কনজেক্টিভাইটিস বা পিঙ্ক আই নামেও পরিচিত।

 বর্তমানে আমাদের রাজ্য সহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় বহু মানুষ এই সংক্রমণের শিকার হচ্ছেন।বর্তমানে চোখের ফ্লু সংক্রান্ত একটি নতুন গবেষণা সামনে এসেছে।  সম্প্রতি প্রকাশিত এই গবেষণায় দেখা গেছে যে ভিটামিন ডি-এর ঘাটতি এবং অ্যালার্জিযুক্ত ব্যক্তিদের কনজাংটিভাইটিস হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে। 

এই গবেষণায় অংশ নেওয়া চোখের ফ্লুতে আক্রান্ত প্রায় ৯২% লোকের ভিটামিন ডি কম ছিল।  শুধু তাই নয়, তাদের কারও কারও ভিটামিন ডি-এর মাত্রা ছিল ৫-এর কম।প্রসঙ্গত আমাদের শরীরে ভিটামিন ডি-এর স্বাভাবিক মাত্রা ৩০-এর কাছাকাছি।  গবেষণায় জড়িত বিশেষজ্ঞদের মতে, তাদের গবেশনাটি মূলত আক্রান্ত ব্যক্তিদের চোখের জলের নমুনা উপর ভিত্তি করে করা। তাই তাদের করা এই গবেষণার ফলাফল কনজেক্টিভাইটিসের চিকিৎসার পদ্ধতির ক্ষেত্রে পরিবর্তন করতে পারে।

গবেষণায় দেখা গেছে যে যখন একজন মানুষের শরীরে ভিটামিন ডি-এর মাত্রা কম থাকে, তখন চোখের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও দুর্বল হয়ে পড়ে, যার কারণে ভাইরাস সহজেই তাকে আক্রমণ করে।  ভাইরাস চোখের প্রদাহ সৃষ্টি করে, যা  থেকে গুরুতর কনজেক্টিভাইটিস হতে পারে।  এছাড়াও, গবেষণায় অংশগ্রহণকারী চোখের ফ্লুতে আক্রান্ত প্রায় ৫৭-৬০%লোকের অ্যালার্জির প্রবণতা ছিল।  কনজেক্টিভাইটিস বেশিরভাগ অ্যাডেনোভাইরাস দ্বারা সৃষ্ট হয়, যা স্পর্শ এবং তরল দ্বারা ছড়িয়ে যেতে পারে।

   ভিটামিন ডি এর অভাব মেটাতে এই টিপসগুলি অনুসরণ করুন

 ভিটামিন ডি এর মাত্রা বজায় রাখতে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম গ্রহণ করুন।

 সূর্যের রশ্মি ভিটামিন ডি এর, সর্বোত্তম উৎস, তাই প্রতিদিন ১০ থেকে ১৫ মিনিট সূর্যালোক নিন।

 চর্বিযুক্ত মাছের মাংস এবং ভিটামিন ডি 3 সমৃদ্ধ মাছের লিভার তেল খাদ্যে অন্তর্ভুক্ত করা যেতে পারে।

 ভিটামিন ডি-এর ঘাটতি মেটাতে ডিমের কুসুম এবং পনির  খেতে পারেন।

 কিছু মাশরুমে ভিটামিন ডি2ও পাওয়া যায়।

 এছাড়াও, দুগ্ধজাত দ্রব্য এবং সিরিয়ালের মতো অনেক খাদ্যদ্রব্যেও ভিটামিন ডি পাওয়া যায়।  

বিদ্র: নিবন্ধে উল্লিখিত পরামর্শগুলি শুধুমাত্র পাঠদের সাধারণ তথ্যের দানের উদ্দেশ্যে । এটিকে কোনও পেশাদার চিকিৎসকের পরামর্শ হিসাবে নেওয়া উচিত নয়।  আপনার কোন প্রশ্ন বা উদ্বেগ থাকলে সর্বদা আপনার ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করুন।

খবরটি শেয়ার করুণ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন


এবার থেকে সংসদের কর্মীরা নতুন ইউনিফর্ম সহ ভারতীয় ঐতিহ্য প্রদর্শন করবে

উত্তরাপথঃ আগামী ১৮ থেকে ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সংসদের বিশেষ অধিবেশনের ঘোষণা ৩১ আগস্ট সংসদীয় বিষয়ক মন্ত্রী প্রহলাদ যোশী করেছিলেন। অধিবেশন চলাকালীন কেন্দ্রের দ্বারা ভারতের নাম পরিবর্তন করে ভারত রাখার প্রস্তাবও আনা হতে পারে।সংসদের বিশেষ অধিবেশন এগিয়ে আসার সাথে সাথে, কর্মীদের পরের সপ্তাহে নতুন ভবনে যাওয়ার সময় সংসদ কর্মীদের নতুন ইউনিফর্ম পরতে হবে।এই ইউনিফর্মগুলিতে ভারতীয় সংস্কৃতির উপাদানগুলিকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে । নেহেরু জ্যাকেট' এবং খাকি রঙের প্যান্ট অন্তর্ভুক্ত থাকবে। নতুন ড্রেস কোড সংসদের উভয় কক্ষে কার্যকর করা হবে।ইউনিফর্মটি তৈরি করেছে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ফ্যাশন টেকনোলজি (NIFT)। তবে নতুন সংসদ ভবনে আনুষ্ঠানিক প্রবেশের জন্য ১৯ সেপ্টেম্বর নির্ধারিত হয়েছে,সেদিন গণেশ চতুর্থীর একটি ছোট 'পূজা' অনুষ্ঠান হবে। .....বিস্তারিত পড়ুন

ধানের সাধ ভক্ষণ : জিহুড়

ড.  নিমাইকৃষ্ণ মাহাত: আশ্বিন সংক্রান্তিতে কৃষক সমাজের মধ্যে জিহুড় পার্বণ পালিত হয়। কৃষক সাধারণের মধ্যে জিহুড় পার্বণের একটি বিশেষ তাৎপর্য রয়েছে। জিহুড় অর্থাৎ আশ্বিন সংক্রান্তির সময় বহাল জমিতে লাগানো ধান বা বড়ান ধানে থোড় আসতে শুরু করে। সুতরাং ধান গাছ গর্ভাবস্থায় থাকে। মানুষের ক্ষেত্রে গর্ভাবস্থায় নানা ধরনের আচার-সংস্কার পালন করা হয়। এই সংস্কারগুলির অন্যতম হলো " ন' মাসি " অর্থাৎ গর্ভাবস্থার নবম মাসে যে আচার -অনুষ্ঠান পালন করা হয়। এর কিছুদিন পরেই সন্তানজন্মগ্রহণ করে। মানব- সমাজের গর্ভাবস্থাজনিত এই ধরনের আচার সংস্কারের সঙ্গে ধান গাছের গর্ভাবস্থার কারণে পালনীয় অনুষ্ঠান জিহুড়ের সাদৃশ্য থাকে দেখা যায়। সেই জন্য অনেকে জিহুড় অনুষ্ঠানকে ধান গাছের 'সাধভক্ষণ'  বলে থাকেন। জিহুড়-এ ধান গাছ .....বিস্তারিত পড়ুন

আমন্ত্রণপত্রে, বর ও কনের নামের সাথে আইআইটি লেখায় বিতর্ক সোশ্যাল মাধ্যমে  

উত্তরাপথঃ বিবাহের সময়, অভিনব এবং ডিজাইনার আমন্ত্রণ কার্ডগুলি সর্বদা সকলের আলোচনায় পরিণত হয়। কিছু আমন্ত্রণ পত্র বিলাসবহুল চকোলেটের সাথে কাস্টমাইজ করে বানানো হয়,আবার কোনও কোনও ক্ষেত্রে পরিবেশের কথা মাথায় রেখে বায়োডিগ্রেডেবল কার্ডের সাথে  উপহার হিসাবে গাছ দেওয়া হয়।  সম্প্রতি, একটি পুরাতন বিবাহের আমন্ত্রণপত্র ইন্টারনেটে ভাইরাল হচ্ছে যা বর এবং কনের শিক্ষাগত যোগ্যতা গুলিকে হাইলাইট করে বানানো হয়েছে । অর্থাৎ কার্ডে বর ও কনের নামের সাথে তাদের পড়াশোনার ডিগ্রিকেও যুক্ত করা হয়েছে। .....বিস্তারিত পড়ুন

সালাদ খাওয়া'র সেরা সময়: খাবার আগে না পরে?

উত্তরাপথঃ আজকাল অনেক ডাইয়েটিশিয়ান সুস্থ থাকতে খাবারে বিশেষ করে সালাদ অন্তর্ভুক্ত করার পরামর্শ দেন।  কারণ এতে অনেক ধরনের শাকসবজি, ডাল এবং ফল রয়েছে, যা আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য বিশেষভাবে উপকারি। কিন্তু সালাদ খাওয়ার সেরা সময় কখন তা নিয়ে মানুষ খুব বিভ্রান্তিতে পড়ে, খাবার পরে না আগে খাবে বুঝতে পারে না।কেউ কেউ যুক্তি দেন যে খাবারের আগে সালাদ খাওয়া হজমে সহায়তা করে এবং  বিভিন্ন স্বাস্থ্যগত উপকারিতা প্রদান করে,আবার আরেক দল বিশ্বাস করে যে খাবারের পরে এটি খাওয়া আরও উপকারী। আসুন উভয় দৃষ্টিভঙ্গি অন্বেষণ করি এবং প্রতিটি পদ্ধতির সম্ভাব্য সুবিধাগুলি বিবেচনা করি। খাবার আগে সালাদ খাওয়া: খাবারের আগে সালাদ খাওয়া ক্ষুধা নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করতে পারে। শাকসবজির উচ্চ ফাইবার সামগ্রী এবং জলের উপাদান পূর্ণতার অনুভূতি তৈরি করতে পারে, যা মূল কোর্সের সময় ক্যালোরি গ্রহণকে হ্রাস করতে পারে। .....বিস্তারিত পড়ুন

Scroll to Top