তৃতীয় বার সরকার গঠনের লক্ষ্য নিয়ে কলকাতায় শাহ

উত্তরাপথ

সামনেই কর্ণাটক বিধানসভার নির্বাচন এবং সেখানে  ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) তার সমস্ত শক্তি দিয়ে লড়াই করছে ক্ষমতা পুনরায় দখলের  লক্ষ্যে ঠিক সেই সময় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আমিত শাহ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জন্য তৃতীয় মেয়াদ নিশ্চিত করার  লক্ষ্য নিয়ে অন্যান্য রাজ্যের দিকে মনোনিবেশ করছেন। এই মিশনের অংশ হিসাবে তিনি পশ্চিমবঙ্গে  দলের ভিত্তি শক্তিশালী করার জন্য রবীন্দ্র জয়ন্তী  উপলক্ষ্যে ৮ এবং ৯ মে  দুই দিনের সফরে আসবেন। ৯ তারিখ রবীন্দ্র জয়ন্তীর দিন তিনি কবিকে শ্রদ্ধা জানাতে কবিগুরুর  জন্মস্থান জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়িতে যাবেন বলে খবর।

২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের জন্য তার মিশন ৩০০ এর অংশ হিসাবে, ভারতীয় জনতা পার্টির কাছে পশ্চিমবঙ্গ একটি গুরুত্বপূর্ণ রাজ্য এখানে গত ২০১৮ লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি ৪০ টি আসনের মধ্যে ১৮ টি আসন পেয়েছিল। কিন্তু পরবর্তী কালে রাজ্য বিজেপি সেই ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে পারেনি।তাঁরা গত বিধানসভা নির্বাচনে ৭৭ টি আসন এবং ২০২২ সালে বাংলার ১০৮টি পৌরসভার একটিতেও জিততে ব্যর্থ হয়,দলটি রাজ্যের পৌরসভার  মোট ২,১৭১ টি ওয়ার্ডের মধ্যে মাত্র ৬৩ টিতে জয়লাভ করতে সক্ষম হয়।পরবর্তী কালে বিজেপি থেকে অনেকেই তৃণমূলে যোগ দিয়েছে। এই অবস্থায় দলকে আবার আগের অবস্থায় ফিরিয়ে আনা দিল্লীর বিজেপির কাছে বড় চ্যালেঞ্জ। তাই ২০২৪  সালের লোকসভা নির্বাচনের জন্য আমিত শাহের  মিশন ৩০০ এর অংশ হিসাবে বাংলা থেকে ২৪ টি আসনের যে লক্ষ্য মাত্রা রাখা হয়েছে তা রাজ্য বিজেপির নেতাদের কাছে কার্যত অসম্ভব।  

খবরটি শেয়ার করুণ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন


পশ্চিমবঙ্গে 'দ্য কেরালা স্টোরি'সিনেমাটির ভাগ্য সুপ্রিম কোর্টের হাতে

উত্তরাপথ: 'দ্য কেরালা স্টোরি' সিনেমাটি পশ্চিমবঙ্গে নিষিদ্ধ হওয়ায় সিনেমাটির সিনেমার নির্মাতারা বাংলার নিষেধাজ্ঞাকে সুপ্রিম কোর্টে চ্যালেঞ্জ করেছিলেন। তাদের দাবী ছিল নিষেধাজ্ঞার ফলে প্রতিদিন তাদের আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হতে হচ্ছে । নির্মাতাদের আবেদনের ভিত্তিতে সুপ্রিম কোর্ট আজ 'দ্য কেরালা স্টোরি' সিনেমাটি পশ্চিমবঙ্গে নিষিদ্ধ হওয়ার পিছনে যুক্তি জানতে চেয়েছে । প্রধান বিচারপতির একটি বেঞ্চ পর্যবেক্ষণ করেছে, যখন এটি কোনও সমস্যা ছাড়াই সারা দেশে চলছে।পশ্চিমবঙ্গের সিনেমাটি কেন নিষিদ্ধ করা উচিত? এটি একই রকম জনসংখ্যার সংমিশ্রণ রয়েছে এম .....বিস্তারিত পড়ুন

কৃষ্ণগহ্বরের "ছায়া" ও "ছবি"

ড. সায়ন বসু: ১৭৮৩ সালে ভূতত্ত্ববিদ জন মিচেল (John Michell) ‘ডার্ক স্টার’ (dark stars) শিরোনামে একটি গবেষণা নিবন্ধ প্রকাশ করেন। তার গবেষণা পত্রের বিষয়বস্তু ছিল "বিপুল পরিমাণ ভর বিশিষ্ট কোন বস্তু যার মহাকর্ষের প্রভাবে আলোক তরঙ্গ পর্যন্ত পালাতে পারে না"। এখান থেকেই মূলত কৃষ্ণগহ্বরের (Black Hole) ধারণা আসে এবং এটি নিয়ে গবেষনা ও অনুসন্ধান শুরু হয়। পরবর্তিতে অবশ্য এটি বিজ্ঞান মহলে একটি অযৌক্তিক তত্ত্ব হিসেবে বেশ অবহেলার স্বীকার হয়। আলোর মত কোন কিছু বেরিয়ে আসতে পারবে না এমন একটি তত্ত্ব বিজ্ঞানীদের কাছে বেশ অযৌক্তিক মনে হয়েছিল। তাই ধীরে ধীরে থেমে যায় কৃষ্ণগহ্বর নিয়ে গবেষনা। .....বিস্তারিত পড়ুন

হিউম্যানয়েড রোবট ARTEMIS রেডি পরবর্তী RoboCup-এর জন্য

অনয় কিরণ মাহাতো: কেমন যেন লাগে রোবট এর কথা শুনলে। তারপরে আবার হিউম্যানয়েড, ভাবা যায়। হিউম্যানয়েড রোবট এক জটিল anthropomorphic কৃত্রিম মেশিন যা রোবোটিক্স, লোকোমোশন এবং কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স) এই হিউম্যানয়েড রোবর্ট এর বিকাশকে ত্বরান্বিত করেছে। ১৮১০ সালে জার্মানির ফ্রেডলিচ কাউফম্যানন প্রথম তৈরি করেছিলেন এক ট্রাম্পেট সৈনিক রোবর্ট। এরপর হুমানোইড রোবর্ট তৈরি করেন আরবের একজন মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার আল-যাজরি। এরপর লিওনার্দো দা ভিঞ্ছির আদলে জাপানের ওসাকা ইউনিভার্সিটির প্রোফেসর ঈশিগুর .....বিস্তারিত পড়ুন

Scroll to Top