পদার্থবিজ্ঞানের গবেষণাপত্রে, ৫,০০০ জনেরও বেশি গবেষক একসাথে

CERN-এ the Large Hadron Collider, সংগৃহীত-ছবি টুইটার

উত্তরাপথঃ পদার্থবিজ্ঞানের উপর একটি গবেষণাপত্র সহযোগিতা এবং বৈজ্ঞানিক প্রচেষ্টার একটি অসাধারণ কৃতিত্ব স্থাপন করেছে।এই পর্যন্ত অতীতের সমবেত ভাবে গবেষণাপত্র প্রকাশের সমস্ত রেকর্ড ভেঙেছে, পদার্থবিজ্ঞানের গবেষণাপত্রে ৫,১৫৪ জন লেখক মিলে একটি যুগান্তকারী  গবেষণাপত্র প্রকাশ করেছে।

ফিজিক্যাল রিভিউ লেটারস ১-এ ১৪ মে এটি প্রকাশিত হয়েছে। ৩৩-পৃষ্ঠার নিবন্ধের শুধুমাত্র প্রথম নয়টি পৃষ্ঠাতে গবেষণার বিষয় বর্ণনা রয়েছে — রেফারেন্স সহ। বাকি ২৪ পৃষ্ঠায় লেখক এবং তাদের প্রতিষ্ঠানের তালিকা রয়েছে।

নিবন্ধটি দুটি দলের প্রথম যৌথ গবেষণাপত্র যা ATLAS এবং CMS পরিচালনা করে, CERN-এ লার্জ হ্যাড্রন কোলাইডার (LHC) এ দুটি বিশাল ডিটেক্টর, জেনেভা, সুইজারল্যান্ডের কাছে ইউরোপের কণা-পদার্থবিদ্যা ল্যাব।  প্রতিটি দল একটি বিস্তৃত সহযোগিতা যার মধ্যে কয়েক ডজন প্রতিষ্ঠান এবং দেশের গবেষকরা জড়িত।

আলোচনায় থাকা পদার্থবিজ্ঞানের গবেষণাপত্রে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান এবং দেশের বিজ্ঞানীদের একটি বিশ্বব্যাপী দল দ্বারা পরিচালিত একটি বিস্তৃত গবেষণা প্রকল্পকে আমাদের সামনে তুলে ধরা হয়েছে। অধ্যয়নের লক্ষ্য ছিল একটি জটিল বৈজ্ঞানিক ঘটনা অনুসন্ধান করা, যা আমাদের জ্ঞানের সীমানাকে আরও বিস্তৃত করতে সাহায্য করবে।গবেষক দলের সদস্যরা তাদের ডেটা একত্রিত করার মাধ্যমে, হিগস বোসনের ভরের সবচেয়ে সুনির্দিষ্ট অনুমান পেতে সক্ষম হয়েছে।

বিভিন্ন বিজ্ঞানীদের গবেষণার উপর নির্ভর করে তৈরি হওয়া এই গবেষণাপত্রটি একটি মৌলিক কণা এবং তাদের মিথস্ক্রিয়া অন্বেষণ থেকে মহাজাগতিক ঘটনা পরীক্ষা করা বা অভিনব উপাদান এবং তাদের বৈশিষ্ট্যগুলি তদন্ত খুব সূক্ষ্ম ভাবে করেছেন। গবেষণার  জটিলতার জন্য বিপুল সংখ্যক বিজ্ঞানীর জড়িত থাকার প্রয়োজন ছিল।

পদার্থবিজ্ঞানের এই প্রথম কোনও গবেষণাপত্রে লেখকদের রেকর্ড-ব্রেকিং সংখ্যা ও একটি অসাধারণ স্তরের সহযোগিতার বার্তা আমাদের সামনে তুলে ধরা হয়। বিভিন্ন শাখার, প্রতিষ্ঠান এবং দেশের বিজ্ঞানীরা একত্রিত হয়ে এই গবেষণা প্রকল্পে তাদের অবদান রেখেছেন। সম্ভবত প্রতিটি লেখক তথ্য সংগ্রহ, ব্যাখ্যা এবং বিশ্লেষণে তাদের যথাসাধ্য অবদান রেখেছেন।

পদার্থবিজ্ঞানের  যেকোনও গবেষণার জন্য প্রয়োজন অত্যাধুনিক গবেষণাগার, উন্নত সরঞ্জাম এবং বিস্তৃত ডেটা সেট সহ গবেষণায় যুক্ত একাধিক উপকরণ। এই ধরনের সহযোগিতা গবেষকদের রিসোর্স লিভারেজ করতে সক্ষম করে যা পৃথক বিজ্ঞানী বা ছোট গবেষণা গোষ্ঠীর কাছে উপলব্ধ নাও হতে পারে।

৫,০০০ জনেরও বেশি পদার্থবিজ্ঞানের বিজ্ঞানী দ্বারা রচিত রেকর্ড-ব্রেকিং গবেষণাপত্রটি বৈজ্ঞানিক সহযোগিতায় একটি অসাধারণ কৃতিত্বের প্রতিনিধিত্ব করে। এই যুগান্তকারী প্রচেষ্টা টিমওয়ার্ক, সম্মিলিত প্রচেষ্টা সহ সহযোগিতা ভবিষ্যতের  আরও উন্নত বৈজ্ঞানিক প্রচেষ্টার পথ প্রশস্ত করবে।

খবরটি শেয়ার করুণ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন


টাইপ 2 ডায়াবেটিসে সময়ে খাবার খাওয়া, ক্যালোরি গণনার চেয়ে বেশি কার্যকর

উত্তরাপথঃ টাইপ 2 ডায়াবেটিসে আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে একটি সাধারণ লক্ষ্য হল ওজন কমানো , অতিরিক্ত ওজন এবং স্থূলতার সাথে টাইপ 2 ডায়াবেটিসের অবস্থার দৃঢ় সম্পর্ক রয়েছে।এই বিপাকীয় ব্যাধিতে আক্রান্ত ব্যক্তিদের জন্য কোন ডায়েটিং কৌশলটি সবচেয়ে ভাল কাজ করে তা স্পষ্ট নয়।েতবে টাইপ 2 ডায়াবেটিস রোগীদের একটি সাম্প্রতিক গবেষণায় দেখা গেছে যে অধ্যয়নের অংশগ্রহণকারীরা যারা দুপুর থেকে রাত ৮ টার মধ্যে খাবার খাওয়া শেষ করেছে তারা, যারা ক্যালোরি গণনা করে তাদের সামগ্রিক ক্যালোরি গ্রহণ কমিয়েছেন তাদের .....বিস্তারিত পড়ুন

বৈধ নথি ছাড়া প্লেনে ওঠার চেষ্টা এটি কি নিছক কৌতুহল মেটানো

উত্তরাপথঃ এটি কি নিছক কৌতুহল না কি কিশোর দুস্ক্রিয়তা। সম্প্রতি বাংলাদেশ এর শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পাসপোর্ট, টিকিট বা বোর্ডিং পাশ কোনও কিছু ছাড়াই জুনায়েদ নামের ১২ বছরের এক শিশু বৈধ নথি ছাড়া বিনা বাধায় কুয়েত এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে উঠে পড়ে। তবে এবারই প্রথম নয়, এর আগেও প্লেনে চড়তে ব্যর্থ হয়ে বাড়িতে ফিরে গেছে। এবার কৌশল পালটে বিমানবন্দরে ঢোকে শিশুটি। এ ঘটনায় বিমানবন্দরের ইমিগ্রেশন ও সিকিউরিটি বিভাগের ১০ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে কারণ দর্শাতে বলা  হয়েছে। গঠন করা হয়েছে পাঁচ সদস্যের একটি উচ্চপর্যায়ের তদন্ত কমিটি। যে এয়ারলাইন্সের ফ্লাইটে এ ঘটনা ঘটে, সেই কুয়েত এয়ারলাইন্সকেও শোকজ করা হয়েছে।  বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এম মফিদুর রহমান বলেছেন, ছেলেটি ব্রোকেন ফ্যামেলি .....বিস্তারিত পড়ুন

বিজ্ঞানীদের মতে, বিশ্ব উষ্ণায়নের প্রভাবে কিছু মাছের প্রজাতি সঙ্কুচিত হচ্ছে

উত্তরাপথঃ আমাদের গ্রহে বিশ্ব উষ্ণায়নের প্রভাব ক্রমশ স্পষ্ট হয়ে উঠছে, ক্রমবর্ধমান তাপমাত্রা আমাদের পরিবেশের বিভিন্ন দিককে প্রভাবিত করছে।সম্প্রতি বিজ্ঞানীরা আবিষ্কার করেছেন যে কিছু মাছের প্রজাতি সঙ্কুচিত হচ্ছে এর প্রভাবে। বিজ্ঞানীদের করা এই গবেষণাটি আমাদের মহাসাগরের উষ্ণায়নের প্রত্যক্ষ পরিণতি বলে মনে করা হচ্ছে। গবেষকদের একটি আন্তর্জাতিক দল দ্বারা পরিচালিা সাম্প্রতিক এই গবেষণায় বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলে মাছের জনসংখ্যা পরীক্ষা করা হয়েছে। বিজ্ঞানীরা দেখেছেন যে কড এবং হ্যাডকের মতো বাণিজ্যিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ সহ অসংখ্য প্রজাতির আকার গত কয়েক দশক ধরে হ্রাস পাচ্ছে। আকারের এই হ্রাস সামুদ্রিক বাস্তুতন্ত্র এবং মৎস শিল্প উভয় ক্ষেত্রে ভবিষ্যতে উদ্বেগের কারণ হতে পারে। .....বিস্তারিত পড়ুন

আমন্ত্রণপত্রে, বর ও কনের নামের সাথে আইআইটি লেখায় বিতর্ক সোশ্যাল মাধ্যমে  

উত্তরাপথঃ বিবাহের সময়, অভিনব এবং ডিজাইনার আমন্ত্রণ কার্ডগুলি সর্বদা সকলের আলোচনায় পরিণত হয়। কিছু আমন্ত্রণ পত্র বিলাসবহুল চকোলেটের সাথে কাস্টমাইজ করে বানানো হয়,আবার কোনও কোনও ক্ষেত্রে পরিবেশের কথা মাথায় রেখে বায়োডিগ্রেডেবল কার্ডের সাথে  উপহার হিসাবে গাছ দেওয়া হয়।  সম্প্রতি, একটি পুরাতন বিবাহের আমন্ত্রণপত্র ইন্টারনেটে ভাইরাল হচ্ছে যা বর এবং কনের শিক্ষাগত যোগ্যতা গুলিকে হাইলাইট করে বানানো হয়েছে । অর্থাৎ কার্ডে বর ও কনের নামের সাথে তাদের পড়াশোনার ডিগ্রিকেও যুক্ত করা হয়েছে। .....বিস্তারিত পড়ুন

Scroll to Top