প্রধানমন্ত্রী মোদী মেট্রোতে চড়ে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ে পৌঁছে গেলেন

উত্তরাপথ

ছবি সৌজন্যে: টুইটার

শুক্রবার দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের শতবর্ষের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী মেট্রোতে চড়ে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ে পৌঁছে গেলেন। তিনি সেদিন সকাল ১১টায় লোককল্যাণ মার্গ মেট্রো স্টেশনে যান । সেখানে টিকিট কাউন্টার থেকে টোকেন নেন এবং তার পরে তিনি প্ল্যাটফর্মে পৌঁছান।  মেট্রোর যাত্রীদের সঙ্গেও মতবিনিময় করেন ,এরপর তিনি  দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ে যান।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় ১ মে ১৯২২ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল।এই বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ৮৬টি বিভাগ, ৯০টি কলেজ এবং ৬ লাখের বেশি শিক্ষার্থী রয়েছে।সেখানে প্রধানমন্ত্রী তার ভাষণে বলেন, একটা সময় ছিল যখন শিক্ষার্থীরা যেকোনো ইনস্টিটিউটে ভর্তির আগে প্লেসমেন্টকে প্রাধান্য দিত।  ভর্তি মানে ডিগ্রি আর ডিগ্রি মানে চাকরি।  শিক্ষা এতটুকুতেই সীমাবদ্ধ ছিল।আজকের তরুণরা জীবনকে এর সঙ্গে বাঁধতে চায় না।  সে নতুন কিছু করতে চায়। ২০১৪ সালের আগে, ভারতে মাত্র কয়েকশ স্টার্টআপ ছিল।  আজ তাদের সংখ্যা এক লাখ ছাড়িয়েছে।  কয়েকদিন আগে আমেরিকা সফরে গিয়েছিলাম।  আপনারা নিশ্চয়ই দেখেছেন যে ভারতের সম্মান এবং গর্ব কতটা বেড়েছে কারণ ভারতের সম্ভাবনা এবং ভারতের যুবকদের প্রতি বিশ্বের আস্থা বেড়েছে।

মোদী তার ভাষনে আরও বলেন্ ১০০ বছর আগে স্বাধীনতা ছিল আমাদের লক্ষ্য আর এখন লক্ষ্য ২০৪৭ সালের মধ্যে একটি উন্নত ভারত গড়ে তোলা।আজ সারা দেশে বিপুল সংখ্যক বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে উঠছে।  কয়েক বছর ধরে আইআইটি এবং আইআইএম-এর মতো প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ক্রমাগত বৃদ্ধি পেয়েছে।  এগুলি হল নিউ ইন্ডিয়ার বিল্ডিং ব্লক।

শিক্ষা কেবল শিক্ষাদানের একটি প্রক্রিয়া নয়, এটি শেখার একটি প্রক্রিয়াও।দীর্ঘদিন ধরে শিক্ষার্থীদের কী শেখানো উচিত , শিক্ষার্থী কী শিখতে চায় সমস্ত দিক বিবেচনা করে আপনাদের সকলের প্রচেষ্টায় নতুন শিক্ষানীতি প্রণীত হয়েছে। এখন শিক্ষার্থীরা তাদের ইচ্ছানুযায়ী তাদের পছন্দের বিষয় বেছে নিতে পারে। 

খবরটি শেয়ার করুণ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন


Sustainable Energy: সূর্যের আলো এবং বায়ু,থেকে বিশ্বব্যাপী ব্যবহৃত বিদ্যুৎ উৎপাদনের রেকর্ড-ব্রেকিং বৃদ্ধি

উত্তরাপথ: সম্প্রতি একটি রিপোর্ট সামনে এসেছে তাতে সূর্যের আলো এবং বায়ু,থেকে সারা বিশ্বব্যাপী ব্যবহৃত বিদ্যুৎ উৎপাদনের রেকর্ড-ব্রেকিং বৃদ্ধি ১২% উৎপাদন করা সম্ভব হয়েছে। এই পুনর্নবীকরণযোগ‍্য সম্পদের ব্যবহার আমাদের অ নবায়নযোগ্য শক্তির ব্যবহারের বিকল্পের দিকে ক্রমবর্ধমান বিশ্বব্যাপী পরিবর্তনকে প্রতিফলিত করছে। সৌর এবং বায়ু শক্তির ব্যবহারের দ্রুত বৃদ্ধি বিভিন্ন কারণ দ্বারা চালিত হয়েছে। প্রথমত, প্রযুক্তির অগ্রগতি পুনর্নবীকরণযোগ্য শক্তি ব্যবস্থাকে আরও দক্ষ এবং সাশ্রয়ী করে তুলেছে। সৌর প্যানেল এবং বায়ু টারবাইনগুলি এখন আগের চেয়ে আরও দক্ষতার সাথে সূর্য এবং বায়ু থেকে শক্তি উৎপাদন করতে সক্ষম, যার ফলে বিশ্বব্যাপী পুনর্নবীকরণযোগ্য শক্তির উৎপাদন বৃদ্ধি .....বিস্তারিত পড়ুন

Scroll to Top