ব্যাকটেরিয়ায় স্নান: আপনার দৈনিক শাওয়ারে অপ্রত্যাশিত বিপদ

উত্তরাপথঃ আমরা কি প্রতিদিন ব্যাকটেরিয়ায় স্নান করছি? আমাদের বেশিরভাগ লোকের জন্য, শাওয়ার বা ঝরনা আমাদের দৈনন্দিন পরিচ্ছন্নতা এবং স্বাস্থ্যবিধি বজায় রাখতে সাহায্য করে। কিন্তু ,সাম্প্রতিক গবেষণায় পিটসবার্গ সোয়ানসন স্কুল অফ ইঞ্জিনিয়ারিং বিশ্ববিদ্যালয়ের সিভিল এবং এনভায়রনমেন্টাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের সহকারী অধ্যাপক সারাহ হেইগ, দেখেছেন যে আমাদের প্রতিদিনের ব্যবহারের ঝরনার জলকে আমরা যতটা শুদ্ধ ভাবি ততটা শুদ্ধ নাও হতে পারে।তার মতে আপাতত এটিকে আশ্চর্যজনক মনে হলেও প্রকৃতপক্ষে, ঝরনাতে প্রচুর পরিমাণে ব্যাকটেরিয়া জন্ম নিতে পারে যা অপ্রত্যাশিত স্বাস্থ্য ঝুঁকি তৈরি করতে পারে।এই প্রসঙ্গে তিনি উপস্থিত DWPI-এর ঘনত্বের তুলনা করার জন্য বিভিন্ন শাওয়ারহেড বৈশিষ্ট্যগুলি তিন বছর ধরে পরীক্ষা করেন যার জন্য তাঁকে  ন্যাশনাল সায়েন্স ফাউন্ডেশন (NSF) থেকে $৪২০,০০০ দেওয়া হয়।

গবেশকদের মতে ঝরনা বায়োফিল্ম গঠনের জন্য একটি আদর্শ পরিবেশ প্রদান করে। এই বায়োফিল্মগুলি শাওয়ারহেড, টাইলস এবং এমনকি ঝরনার পর্দাতেও জমা হতে পারে, যা সম্ভাব্য ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়াগুলির জন্য একটি প্রজনন স্থল তৈরি করে।গবেশনায় বিভিন্ন প্যাথোজেনিক ব্যাকটেরিয়া, যেমন লেজিওনেলা, সিউডোমোনাস এরুগিনোসা এবং মাইকোব্যাকটেরিয়াম এভিয়াম, প্রভৃতি ব্যাকটেরিয়ার অস্তিত্ব ঝরনার জলে পাওয়া গেছে। এই ব্যাকটেরিয়াগুলি শ্বাসযন্ত্রের সংক্রমণ, ত্বকের জ্বালা এবং অন্যান্য স্বাস্থ্য সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে, বিশেষ করে দুর্বল প্রতিরোধ ক্ষমতা সম্পন্ন ব্যক্তিদের মধ্যে।

ঝরনায় স্নানের সময়, জলের ফোঁটাগুলি অ্যারোসোলাইজড হয়ে যায়, এর ফলে ঝরনার জলে থাকা ব্যাকটেরিয়াগুলি বাতাসে ছড়িয়ে যায়। এই ব্যাকটেরিয়া-বোঝায় জলের ফোঁটাগুলিতে শ্বাস নেওয়ার ফলে শ্বাসযন্ত্রের সংক্রমণ হতে পারে, বিশেষত কম বায়ুচলাচল যুক্ত আবদ্ধ স্থানে স্নানের ফলে।গবেশকদের মতে এই জাতীয় জলে স্নান করা ব্যাকটেরিয়ায় স্নান এর নামান্তর।

প্রতিকারঃ-

যথাযথ অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এজেন্ট ব্যবহার করে শাওয়ারহেড, টাইলস এবং অন্যান্য পৃষ্ঠগুলি নিয়মিত পরিষ্কার এবং জীবাণুমুক্ত করুন। বায়োফিল্মগুলি সমৃদ্ধ হতে পারে এমন অঞ্চলগুলি পরিষ্কারের ব্যাপারে বিশেষ মনোযোগ দিন।

অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল বৈশিষ্ট্যযুক্ত শাওয়ারহেডগুলি বা একদম ভালোভাবে পরিষ্কারের জন্য সহজেই বিচ্ছিন্ন করা যেতে পারে এমন শাওয়ারহেডগুলি ব্যবহার করুন৷ পুরানো বা ক্ষতিগ্রস্থ শাওয়ারহেডগুলি প্রতিস্থাপন করুন ,কারণ এই জাতীয় শাওয়ারহেডগুলি থেকে বেশি পরিমাণে ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণের সম্ভাবনা থাকে। 

আর্দ্রতা যা ব্যাকটেরিয়ার বৃদ্ধিকে উৎসাহিত করতে পারে। তাই বাথরুমে আদ্রতা কমাতে সঠিক বায়ুচলাচল নিশ্চিত করুন, যা ব্যাকটেরিয়ার বৃদ্ধিকে কম করতে সাহায্য করবে। বায়ুপ্রবাহের সুবিধার্থে এবং ব্যাকটেরিয়া-বোঝাই আর্দ্রতা কমাতে জানালা খুলুন বা এক্সজস্ট ফ্যান ব্যবহার করুন।

স্থির জল ব্যাকটেরিয়ার প্রজনন ক্ষেত্র হয়ে উঠতে পারে। ঝরনা এলাকায় ভেজা তোয়ালে বা বাথম্যাট ফেলে রাখা এড়িয়ে চলুন, এবং অবিলম্বে বাথরুমের আশপাশের এলাকা পরিষ্কার রাখুন এবং জমা জলের সমস্যার সমাধান করুন যাতে জল দাঁড়িয়ে থাকতে না পারে।

ভাল ব্যক্তিগত স্বাস্থ্যবিধির অভ্যাস বজায় রাখুন, যেমন পরিষ্কার তোয়ালে ব্যবহার করা, স্নানের আগে এবং পরে হাত ধোয়া এবং অন্যদের সাথে ব্যক্তিগত যত্নের জিনিসগুলি ভাগ করা এড়িয়ে চলুন।

লেজিওনেলা ব্যাকটেরিয়া ওয়াটার হিটারে দ্রুত বৃদ্ধি পায়।ব্যাকটেরিয়া দূষণের ঝুঁকি কমাতে আপনার ওয়াটার হিটার নিয়মিত ব্যবহার করুন  এবং পরিষ্কার করুন।

ব্যাকটেরিয়া এবং অন্যান্য দূষিত পদার্থের উপস্থিতি কমাতে জলের ফিল্টার বা পিউরিফায়ার ইনস্টল করুন৷ এই ফিল্টারগুলি সম্ভাব্য স্বাস্থ্য ঝুঁকির বিরুদ্ধে সুরক্ষার একটি অতিরিক্ত স্তর সরবরাহ করতে সহায়তা করতে পারে।

ঝরনা আমাদের দৈনন্দিন রুটিনের একটি অপরিহার্য অংশ হলেও,এটির ব্যবহার সম্পর্কে সচেতন হওয়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। নিয়মিত পরিষ্কার, সঠিক বায়ুচলাচল, এবং ব্যক্তিগত স্বাস্থ্যবিধি অনুশীলনের মাধ্যমে একটি নিরাপদ এবং স্বাস্থ্যকর ঝরনা পরিবেশ বজায় রাখা সম্ভব। তাই পরের বার যখন আপনি আপনার বাথরুমে স্নান করবেন, তখন নিশ্চিত হয়ে নিন যে আপনি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার মধ্যে স্নান করছেনতো ,কোনও ব্যাকটেরিয়ায় স্নান করছেন না তো?

খবরটি শেয়ার করুণ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন


Search of food alternatives ভবিষ্যত পৃথিবীর খাদ্যনিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বিকল্প সন্ধানে কাজ করছেন বিজ্ঞানীরা

উত্তরাপথঃ খাবারের সাথে মানুষের সবসময় এক ভালবাসার সম্পর্ক রয়েছে।সেই কারণে আমরা বিভিন্ন স্বাদের বিভিন্ন রকম খাবার খেতে ভালোবাসি।কিন্তু কখনও কি ভেবে দেখেছেন আপনার প্রিয় খাবারটি তৈরি করতে কতধরনের উপাদানের প্রয়োজন হতে পারে? উত্তর খুব সহজ ধরুন আপনার প্রিয় খাবার চিলি চিকেন।এটি তৈরি করতে কোন ধরনের উপাদানের প্রয়োজন হতে পারে তার জন্য কোনও রন্ধন বিশেষজ্ঞ হওয়ার দরকার নেই। সাধারনভাবে মাংসের কিমা,কিছু সবজি এবং তেল মশলা ব্যাস।এবার আসাযাক উপাদানগুলি প্রসঙ্গে চিলি চিকেনের প্রধান উপাদান চিকেন তা আমরা সবাই জানি। এই মুরগী লালন-পালনের জন্য খাবার, জল এবং একটি জায়গা দরকার।এবার হিসেব করুন চিলি চিকেনে থাকা অন্যান্য সবজি ও মশালা চাষের জন্য আরও কতটা জমির দরকার? ভবিষ্যত পৃথিবীর খাদ্যনিরাপত্তা নিশ্চিত করতে এই ভাবেই চিন্তা করছেন বিজ্ঞানীরা। আমরা প্রতিদিন যা খাচ্ছি তার পেছনে আসলে কত কী লাগছে এবং সেগুলি চাষ করতে কতটা জমি লাগছে এইসব নিয়ে চিন্তা করছেন বিজ্ঞানীরা। ২০২৪ সালে পৃথিবীতে প্রায় ৮.১ বিলিয়ন লোক বাস করছে .....বিস্তারিত পড়ুন

এই ৪ ধরনের আটার গুণাগুণ জানলে আপনি গমের আটা খাওয়া বন্ধ করে দেবেন

উত্তরাপথঃ ভারতীয় জনসংখ্যার একটি বড় অংশের খাদ্য রুটি ছাড়া অসম্পূর্ণ, এমনকি আমাদের বাঙালীদের মধ্যেও একবেলা রুটি খাওয়ার রেওয়াজ রয়েছে ।এই রুটিগুলি কোন ধরণের আটা থেকে তৈরি করা উচিত তা নিয়ে সর্বদা বিতর্ক রয়েছে। আমাদের কৃষিপ্রধান দেশে অনেক ধরনের আটা রয়েছে। প্রতিটি আটার নিজস্ব বিশেষত্ব এবং বৈশিষ্ট্য রয়েছে।যদি এগুলোকে আপনার খাদ্যতালিকায় অন্তর্ভুক্ত করেন তাহলে আপনি সহজেই সুস্থ থাকতে পারবেন। আজ আমরা আপনাদের এমনই ৪টি স্বাস্থ্যকর আটার কথা বলছি। বার্লি ময়দা বার্লি ময়দা ফাইবার, প্রোটিন, ভিটামিন এবং খনিজগুলির একটি ভাল উৎস। এতে ভিটামিন B1, B2, B6 এর পাশাপাশি নিয়াসিন, ম্যাগনেসিয়াম এবং ফসফরাস রয়েছে। এটি গমের আটার তুলনায় কিছু অনন্য সুবিধা দিতে পারে। বার্লি ময়দা ব্যবহারের কিছু সম্ভাব্য সুবিধার মধ্যে রয়েছে:উচ্চতর ফাইবার সামগ্রী: বার্লি ময়দা গমের আটার চেয়ে বেশি আঁশযুক্ত, যা হজমের জন্য সহায়ক।নিম্ন গ্লাইসেমিক সূচক: বার্লি ময়দা গমের আটার তুলনায় কম গ্লাইসেমিক সূচক রয়েছে, যার অর্থ এটি রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করতে পারে।পুষ্টিগুণে সমৃদ্ধ: বার্লি ময়দা ভিটামিন এবং খনিজ যেমন বি ভিটামিন, আয়রন এবং ম্যাগনেসিয়ামের একটি ভাল উৎস। ম্যাগনেসিয়াম হাড় মজবুত করে। .....বিস্তারিত পড়ুন

রান্নার গ্যাসের আধার সংযোগ না হলে ভর্তুকি বন্ধ বা সংযোগ সাময়িক বিচ্ছিন্ন হওয়ার বার্তা নির্দেশে নেই

উত্তরাপথঃরান্নার গ্যাসের আধার তথ্য যাচাইয়ের শেষ দিন কবে? ডেডলাইন জানিয়ে দিল কেন্দ্র এলপিজির গ্রাহকদের আধার কার্ড তথা বায়োমেট্রিক তথ্য যাচাইয়ের ডেডলাইন বেঁধে দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। তেল সংস্থাগুলিকে চিঠি দিয়ে জানিয়েছে কেন্দ্র।ইন্ডিয়ান অয়েল, ভারত পেট্রোলিয়াম, হিন্দুস্তান পেট্রোলিয়ামের ডিরেক্টরদের চিঠি দিয়ে কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে, গ্যাসের আধার যাচাই ৩১ মার্চের মধ্যে সারতে হবে। কিন্তু প্রশ্ন উঠছে, তার মধ্যে কোনও গ্রাহকের সেই প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ না হলে কী হবে? গ্যাস পেতে অসুবিধা হবে কী? ভর্তুকি পেতে সমস্যা হবে না তো? যাচাই চালু থাকবে কি না, সেই প্রশ্নও রয়েছে। তেল সংস্থা সূত্রের দাবি, ভর্তুকি বন্ধ হওয়া বা সংযোগ সাময়িক বিচ্ছিন্ন হওয়ার বার্তা কেন্দ্রের নির্দেশে নেই। গত বছর অক্টোবরে কেন্দ্রের তেল মন্ত্রকের তরফে নির্দেশ দেওয়া হয়, সমস্ত গ্রাহকদের বায়োমেট্রিক তথ্য অর্থাৎ আধার তথ্য যাচাই করতে হবে।সেই সময় এর কারণ না জানালেও সংশ্লিষ্ট মহলের মতে, ভর্তুকির ভুয়ো সংযোগ চিহ্নিত করে সরকারি অর্থের অপচয় রোখাই লক্ষ্য। সরকার নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে প্রক্রিয়াটি শেষ করতে বললেও, দিনক্ষণ বেঁধে না দেওয়ায় ধন্দ তৈরি হয়। সেসময় সেই তথ্য যাচাই করার কোনও ডেডলাইন দেওয়া হয়নি। .....বিস্তারিত পড়ুন

বাবা সাহেব ভীমরাও আম্বেদকর এই সংবিধানকে পুড়িয়ে ফেলতে চেয়েছিলেন।কিন্তু কেন?

উত্তরাপথঃ হাতে গোনা আর কদিন বাকি,দেশবাসী পালন করতে চলেছে ডক্টর ভীমরাও রামজি আম্বেদকরের ১৬৩ তম জন্মবার্ষিকি। ডঃ আম্বেদকর  ভারতের সংবিধানের অন্যতম স্রষ্টা। সেইসাথে তিনি একজন বিস্ময়কর চিন্তাবিদ, সমাজকর্মী এবং মহান নেতা ছিলেন। জীবনের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে তিনি দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য কাজ করেছেন।বাবা সাহেব ভীমরাও আম্বেদকর ১৪ এপ্রিল ১৮৯১ সালে মহারাষ্ট্রের একটি দলিত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি তার অধ্যয়ন জীবনে অনেক সংগ্রামের মুখোমুখি হয়েছিলেন, কিন্তু তার কঠোর পরিশ্রম, তার চমৎকার শিক্ষা এবং তার অনন্য মনোযোগ তাকে একজন বিশিষ্ট চিন্তাবিদ করে তুলেছিল।তিনি দেশের সকল শ্রেণী, বর্ণ ও ধর্মের মানুষের স্বার্থে সমাজে সমতা, ন্যায়বিচার ও অধিকারের দাবি নিশ্চিত করতে সংবিধান প্রণয়ন করেছিলেন। সংবিধান মূলত যেকোনো দেশের সর্বোচ্চ পাঠ্য।এটি সেই বই যার উপর দেশের সাংবিধানিক কাঠামো টিকে আছে।সহজ কথায়, এটি এমন একটি বই যাতে দেশের সামাজিক, রাজনৈতিক ও বিচার ব্যবস্থাকে নির্দেশনা দেওয়ার জন্য নিয়মাবলী লেখা হয়েছে। .....বিস্তারিত পড়ুন

Scroll to Top