World Mental Health Day: বন্ধ্যাত্বের মানসিক সমস্যার সমাধানে কিছু পরামর্শ

উত্তরাপথঃ বন্ধ্যাত্ব শুধুমাত্র জৈবিক সমস্যার বিষয় নয়, এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ মানসিক সমস্যা।সন্তান ধারণের আকাঙ্ক্ষা মানুষের অস্তিত্বের একটি মৌলিক দিক,সেই দিক থেকে বন্ধ্যাত্ব একটি গভীর যন্ত্রণাদায়ক অভিজ্ঞতা যা বিশ্বব্যাপী লক্ষ লক্ষ দম্পতিকে প্রভাবিত করে চলেছে।  এটি এমন একটি অবস্থা যা একটি দম্পতির মানসিক স্বাস্থ্যের উপর গভীর প্রভাব ফেলতে পারে, যা প্রায়ই তাদের দুঃখ, হতাশা এবং বিচ্ছিন্নতার অনুভূতির দিকে পরিচালিত করে।বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (WHO) মতে, বন্ধ্যাত্ব বিশ্বব্যাপী প্রায় ১০-১৫ শতাংশ দম্পতিকে প্রভাবিত করেছে, এটি একটি  বিশ্বব্যাপী উল্লেখযোগ্য স্বাস্থ্য সমস্যা তৈরি করেছে,যদিও অনেক ক্ষেত্রে আধুনিক চিকিৎসা পদ্ধতি আবিষ্কার হয়েছে,কিন্তু অধিকাংশ ক্ষেত্রে এগুলি অত্যন্ত ব্যায়বহুল হওয়ায় সবাই এই আধুলিক চিকিৎসা পদ্ধতির সুবিধা ইচ্ছা থাকলেও নিতে পারেন না।

 আবার অনেক  ক্ষেত্রে বহু দম্পতি চিকিৎসা গ্রহণের পরও তেমন লাভবান হন নি। হরমোনের ভারসাম্যহীনতা, প্রজনন তন্ত্রের কাঠামোগত সমস্যা, জেনেটিক কারণ এবং ধূমপান বা স্থূলতার মতো জীবনযাত্রার কারণ সহ বন্ধ্যাত্বের অনেক কারণ থাকতে পারে যা দম্পতির কষ্ট বাড়িয়ে দেয়।  বন্ধ্যাত্বের মানসিক সমস্যা দম্পতিরা বিভিন্ন ভাবে অনুভব করতে পারে, যার মধ্যে রয়েছে: পারিবারিক দুঃখ, নিরাশা এবং হতাশার একটি বিস্তৃত অনুভূতি।সেই সাথে চিকিৎসা পদ্ধতির নিরলস চাপ, আর্থিক বোঝা এবং ফলাফলের অনিশ্চয়তা দীর্ঘস্থায়ী চাপের দিকে নিয়ে যেতে পারে, যা অনেক ক্ষেত্রে শারীরিক এবং মানসিক সমস্যা তৈরি করতে পারে।

 দম্পতিরা অনেক সময় তাদের বন্ধ্যাত্বের জন্য নিজেদের বা একে অপরকে দোষারোপ করতে পারে, যা অপরাধবোধ এবং লজ্জার অনুভূতির দিকে পরিচালিত করে, যদিও বন্ধ্যাত্ব প্রায়শই তাদের নিয়ন্ত্রণের বাইরের কারণগুলির কারণে হয়। অনেক দম্পতি যারা বন্ধ্যাত্বের সাথে লড়াই করছেন তারা অস্বস্তিকর প্রশ্ন এড়াতে সামাজিক পরিস্থিতি থেকে নিজেদেরকে বিচ্ছিন্ন করে ফেলেন, যা আরও একাকীত্ব এবং হতাশার অনুভূতির দিকে নিয়ে যায়।

 বন্ধ্যাত্বের মানসিক স্বাস্থ্যের দিকগুলিকে যত্ন সহকারে গুরুত্ব দেওয়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।   

 •   মানসিক যন্ত্রণা মোকাবেলায় সাহায্য করার জন্য একজন মানসিক স্বাস্থ্য পেশাদারের সাথে পরামর্শ করুন, যেমন একজন থেরাপিস্ট বা কাউন্সেলর।

 •   একই ধরনের সমস্যার মুখোমুখি অন্যদের সাথে সংযোগ স্থাপন করা মূল্যবান মানসিক সমর্থন প্রদান করতে পারে।

 •  মানসিক চাপ কমাতে এবং মানসিক সুস্থতার উন্নতি করতে ধ্যান, যোগব্যায়াম বা ব্যায়ামের মতো স্ব-যত্নমূলক কার্যকলাপকে অগ্রাধিকার দিন।

 •  আপনার মানসিক স্থিতিশীলতা বজায় রাখার জন্য ভালো বন্ধু এবং পরিবারের সাথে সময় কাটান।

খবরটি শেয়ার করুণ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন


ইঞ্জিনিয়ারড ব্যাকটেরিয়া জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে লড়াই করার ক্ষমতা রাখে

উত্তরাপথ: লরেন্স বার্কলে ন্যাশনাল ল্যাবরেটরি এবং ইউসি বার্কলে এর সহযোগিতামূলক গবেষণায় গবেষকরা একটি অভিনব ব্যাকটেরিয়া ইঞ্জিনিয়ারড করেছেন যা জ্বালানি, ওষুধ এবং রাসায়নিক উত্পাদনের সময় উত্পন্ন গ্রিনহাউস গ্যাসের নির্গমনকে উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস করতে ডিকার্বনাইজশন এর মাধ্যমে। সম্প্রতি Nature জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে এই আবিষ্কারটি । আর এটি "Carbene Transfer Chemistry in Biosynthesis" নামে পরিচিত । একটি অভিনব প্রতিক্রিয়ার সাথে প্রাকৃতিক এনজাইমেটিক বিক্রিয়াকে সংহত করতে ব্যাকটেরিয়াকে কাজে লাগায়। আর যা সাধারণত জীবাশ্ম .....বিস্তারিত পড়ুন

মণিপুরের সামগ্রিক উন্নয়ন বর্তমান সমস্যার সমাধান হতে পারে

উত্তরাপথ: মণিপুরের মেইতি সম্প্রদায় তফসিলি উপজাতির তালিকায় তাদের অন্তর্ভুক্তির দাবি অব্যাহত রাখবে এবংআন্দোলন তীব্রতর করবে বলে খবর। অন্যদিকে ট্রাইবাল সলিডারিটি মার্চ, কিছু পাহাড়ি উপজাতির একটি তড়িঘড়ি তৈরি করা ছাতা সংগঠন,তারা মেইতি সম্প্রদায়ের দাবির বিরোধিতা করার জন্য দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। তাই পরিস্থিতি আরও অস্থির হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।অন্যদিকে আরেকটি সূত্র বলছে মণিপুরের পরিস্থিতি আবার স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসছে। যদিও এখন পর্যন্ত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সেনাবাহিনীর সহায়তা নিচ্ছে রাজ্য সরকার।  কিন্তু এ ধরনের স্পর্শকাতর বিষয়ে দীর্ঘ .....বিস্তারিত পড়ুন

Scroll to Top