শল্যচিকিৎসকরা শূকরের হৃৎপিণ্ডকে ট্রান্সপ্লান্ট করেন, মৃতপ্রায় ব্যক্তিকে বাঁচাতে

শূকরের হৃৎপিণ্ডকে ট্রান্সপ্লান্ট ছবি -এক্স হ্যান্ডেল

উত্তরাপথঃ  ওয়াশিংটনের এক শল্য চিকিৎসক একজন মৃত প্রায় ব্যক্তির জীবন বাঁচানোর জন্য একটি শূকরের হৃৎপিণ্ডকে ট্রান্সপ্লান্ট করেন সেই ব্যক্তির মধ্যে। মেরিল্যান্ড মেডিসিন বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসকদের মতে, ৫৮ বছর বয়সী এই ব্যক্তি বিশ্বের দ্বিতীয় রোগী যিনি জেনেটিকালি পরিবর্তিত শূকরের হৃদপিণ্ড প্রতিস্থাপন করেছেন, এটি চিকিৎসা গবেষণার ক্রমবর্ধমান ক্ষেত্রে এক উল্লেখযোগ্য মাইলফলক।

 মানুষের মধ্যে পশুর অঙ্গ প্রতিস্থাপন করা, যাকে বলা হয় জেনোট্রান্সপ্লান্টেশন, মানব অঙ্গ দানের দীর্ঘস্থায়ী অভাবের এক কার্যকর সমাধান হতে পারে।বিশ্বের উন্নত থেকে স্বল্প উন্নত সব দেশেই অঙ্গ প্রতিস্থাপনের জন্য অপেক্ষার দীর্ঘ তালিকা রয়েছে।

এর আগেও  শূকরের হৃৎপিণ্ডকে ট্রান্সপ্লান্ট এর প্রক্রিয়াটি ইউনিভার্সিটি অফ মেরিল্যান্ড স্কুল অফ মেডিসিনের বিশেষজ্ঞদের দ্বারা সম্পাদিত হয়েছিল, যেখানে প্রথম রোগী গত বছর তার হৃৎপিণ্ড প্রতিস্থাপনের দুই মাস পরে মারা যায় । অপারেশনের আগে তার স্বাস্থ্যের খারাপ অবস্থা সহ অনেক কারণের কথা হাসপাতালের পক্ষ থেকে  বিবৃতিতে বলা হয়েছে।

সর্বশেষ অপারেশনটি বুধবার হয়, রোগী লরেন্স ফাসেট আগে থেকে থাকা ভাস্কুলার রোগ এবং অভ্যন্তরীণ রক্তপাতের জটিলতার কারণে দান করা মানব হৃদপিণ্ডের জন্য অযোগ্য ছিল। দুই সন্তানের বাবা এবং নৌবাহিনীর এই ব্যক্তির বক্তব্য, আমার একমাত্র বিকল্প এখন শূকরের হৃদপিণ্ড, জেনোট্রান্সপ্লান্টের সাথে যাওয়া।এই পদ্ধতিতে এখনও তার বাঁচার আশা আছে এবং একটি সুযোগ আছে বলে তিনি মনে করেন।  

ট্রান্সপ্লান্টের পর, মিঃ ফাসেট নিজে থেকে শ্বাস নিচ্ছেন এবং নতুন হৃদপিণ্ড “সহায়ক যন্ত্রের সাহায্য ছাড়াই” ভালভাবে কাজ করছে,বলে বিশ্ববিদ্যালয় জানিয়েছে।তিনি প্রচলিত প্রত্যাখ্যান বিরোধী ওষুধ সেবনের পাশাপাশি একটি নতুন অ্যান্টিবডি থেরাপি গ্রহণ করছিলেন যাতে তার শরীরের নতুন অঙ্গের ক্ষতি বা প্রত্যাখ্যান না হয়।

জেনোট্রান্সপ্ল্যান্ট চ্যালেঞ্জিং কারণ রোগীর ইমিউন সিস্টেম বিদেশী অঙ্গ আক্রমণ করবে।  বিজ্ঞানীরা জেনেটিক্যালি মডিফাইড শূকরের অঙ্গ ব্যবহার করে সমস্যাটি দূর করার চেষ্টা করছেন।গত কয়েক বছরে, ডাক্তাররা জেনেটিক্যালি মডিফাইড শূকর থেকে মস্তিষ্ক ,কিডনি সবই রোগীদের দেহে  প্রতিস্থাপন করেছেন।

নিউইয়র্কের এনওয়াইইউ ল্যাঙ্গোন হাসপাতাল ট্রান্সপ্ল্যান্ট ইনস্টিটিউট এই মাসে ঘোষণা করেছে যে কোমায় চলে যাওয়া একজন রোগীর মধ্যে প্রতিস্থাপিত একটি শূকরের কিডনি একটানা ৬১ দিন ধরে কাজ করছে।

প্রথম দিকে জেনোট্রান্সপ্লান্টেশন গবেষণা প্রাইমেট থেকে অঙ্গ সংগ্রহের উপর দৃষ্টি নিবদ্ধ ছিল — উদাহরণস্বরূপ, ১৯৮৪ সালে “বেবি ফা” নামে পরিচিত একটি নবজাতকের মধ্যে একটি বেবুনের হার্ট প্রতিস্থাপন করা হয়েছিল, কিন্তু সে মাত্র ২০ দিন বেঁচে ছিল।

 বর্তমান জেনোট্রান্সপ্লান্টেশন গবেষণাগুলি শূকরের উপর ফোকাস করে তাদের মানুষের জন্য  আদর্শ দাতা হিসাবে বিবেচনা করে কাজ করছে। শূকরের অঙ্গের আকার তাদের দ্রুত বৃদ্ধি এর প্রধান কারণ।

দ্বিতীয় শূকরের হৃৎপিণ্ডকে ট্রান্সপ্লান্ট একটি মৃত প্রায় রোগীর জীবন বাঁচাতে চিকিৎসা পেশাদারদের দ্বারা করা অসাধারণ প্রচেষ্টা সন্দেহ নাই। যদিও এই পদ্ধতির সাফল্য  এখনও অনিশ্চিত । জেনোট্রান্সপ্লান্টেশন কৌশলগুলির অগ্রগতি অব্যাহত থাকায়, এই পরীক্ষামূলক পদ্ধতিটি সম্ভাব্যভাবে অঙ্গ প্রতিস্থাপনের জন্য এক নতুন বিকল্পের পথ প্রশস্ত করবে বলে মনে করা হচ্ছে ।

খবরটি শেয়ার করুণ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন


Diabetes Treatment: রক্তে শর্করা স্থিতিশীল করতে ডালিয়া ফুলের নির্যাস কার্যকর

উত্তরাপথঃ ডায়াবেটিস নিয়ে গবেষণার ক্ষেত্রে একটি উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি হয়েছে।সম্প্রতি গবেষণায় ওটাগো বিশ্ববিদ্যালয়ের (University of Otago)নেতৃত্বে বিজ্ঞানীরা ক্লিনিকাল ট্রায়ালের মাধ্যমে আবিষ্কার করেছে যে ডালিয়া ফুলের পাপড়ির নির্যাস ডায়াবেটিসে আক্রান্ত ব্যক্তিদের রক্তে শর্করা স্থিতিশীল করতে সাহায্য করতে পারে। সেন্টার ফর নিউরোএন্ডোক্রিনোলজির একজন সহযোগী অধ্যাপক আলেকজান্ডার টুপসের( Alexander Tups) নির্দেশনায়, দলটি খুঁজে পেয়েছে যে, উদ্ভিদের একটি অণু, যা মস্তিষ্কে কাজ করে এবং রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রন করার জন্য শরীরের ক্ষমতাকে শক্তিশালী করে।প্রসঙ্গত ডায়াবেটিস হল একটি দীর্ঘস্থায়ী বিপাকীয় ব্যাধি যা অপর্যাপ্ত ইনসুলিন উৎপাদনের কারণে রক্তে শর্করার মাত্রা অত্যাধিক বেড়ে যায়। .....বিস্তারিত পড়ুন

বিজ্ঞানীদের মতে, বিশ্ব উষ্ণায়নের প্রভাবে কিছু মাছের প্রজাতি সঙ্কুচিত হচ্ছে

উত্তরাপথঃ আমাদের গ্রহে বিশ্ব উষ্ণায়নের প্রভাব ক্রমশ স্পষ্ট হয়ে উঠছে, ক্রমবর্ধমান তাপমাত্রা আমাদের পরিবেশের বিভিন্ন দিককে প্রভাবিত করছে।সম্প্রতি বিজ্ঞানীরা আবিষ্কার করেছেন যে কিছু মাছের প্রজাতি সঙ্কুচিত হচ্ছে এর প্রভাবে। বিজ্ঞানীদের করা এই গবেষণাটি আমাদের মহাসাগরের উষ্ণায়নের প্রত্যক্ষ পরিণতি বলে মনে করা হচ্ছে। গবেষকদের একটি আন্তর্জাতিক দল দ্বারা পরিচালিা সাম্প্রতিক এই গবেষণায় বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলে মাছের জনসংখ্যা পরীক্ষা করা হয়েছে। বিজ্ঞানীরা দেখেছেন যে কড এবং হ্যাডকের মতো বাণিজ্যিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ সহ অসংখ্য প্রজাতির আকার গত কয়েক দশক ধরে হ্রাস পাচ্ছে। আকারের এই হ্রাস সামুদ্রিক বাস্তুতন্ত্র এবং মৎস শিল্প উভয় ক্ষেত্রে ভবিষ্যতে উদ্বেগের কারণ হতে পারে। .....বিস্তারিত পড়ুন

বৈধ নথি ছাড়া প্লেনে ওঠার চেষ্টা এটি কি নিছক কৌতুহল মেটানো

উত্তরাপথঃ এটি কি নিছক কৌতুহল না কি কিশোর দুস্ক্রিয়তা। সম্প্রতি বাংলাদেশ এর শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পাসপোর্ট, টিকিট বা বোর্ডিং পাশ কোনও কিছু ছাড়াই জুনায়েদ নামের ১২ বছরের এক শিশু বৈধ নথি ছাড়া বিনা বাধায় কুয়েত এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে উঠে পড়ে। তবে এবারই প্রথম নয়, এর আগেও প্লেনে চড়তে ব্যর্থ হয়ে বাড়িতে ফিরে গেছে। এবার কৌশল পালটে বিমানবন্দরে ঢোকে শিশুটি। এ ঘটনায় বিমানবন্দরের ইমিগ্রেশন ও সিকিউরিটি বিভাগের ১০ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে কারণ দর্শাতে বলা  হয়েছে। গঠন করা হয়েছে পাঁচ সদস্যের একটি উচ্চপর্যায়ের তদন্ত কমিটি। যে এয়ারলাইন্সের ফ্লাইটে এ ঘটনা ঘটে, সেই কুয়েত এয়ারলাইন্সকেও শোকজ করা হয়েছে।  বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এম মফিদুর রহমান বলেছেন, ছেলেটি ব্রোকেন ফ্যামেলি .....বিস্তারিত পড়ুন

Scroll to Top