১০০০ টাকায় ‘ওয়ান স্টেশন ওয়ান প্রোডাক্ট'(OSOP) স্কিমে ব্যবসার সুযোগ দিচ্ছে ভারতীয় রেল

উত্তরাপথ: সারাদেশে আমাদের তরুণ প্রজন্মের একটা বড় অংশ বেকারত্বের শিকার । এদের না আছে চাকরি আর না আছে ব্যবসা করার মত পুঁজি । এবার এই সমস্যার খানেকটা সমাধানে এগিয়ে এক ভারতীয় রেল। প্রতিদিন সারা দেশে  কয়েক কোটি যাত্রী ভারতীয় রেলের পরিষেবা নেন। তারফলে  রেল স্টেশনগুলিতে জনসমাগম লেগেই থাকে। এবার রেল খুব অল্প টাকায় মাত্র ১০০০ টাকায় ‘ওয়ান স্টেশন ওয়ান প্রোডাক্ট'(OSOP) স্কিমে স্টেশনে দোকান দিচ্ছে ।

ভারতীয় রেলওয়ের ‘ওয়ান স্টেশন ওয়ান প্রোডাক্ট’ (ওএসওপি) স্কিমের লক্ষ্য হল আয়ের সুযোগ প্রদান করা । এই স্কিমের অঙ্গ হিসাবে সারা ভারতের রেল স্টেশনগুলিতে স্থানীয় পণ্যগুলির বিক্রিতে উৎসাহ দেওয়া হয়। ‘ওয়ান স্টেশন ওয়ান প্রোডাক্ট’ (OSOP) স্কিমটি সমাজের প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জন্য জীবিকা অর্জনের একটি সুযোগ প্রদান করে থাকে এবং স্থানীয় কারিগর, তাঁতি, কারুশিল্পী ইত্যাদির দক্ষতা বৃদ্ধি করে।

এই স্কিমের অধীনে, রেলওয়ে স্থানীয় পণ্য প্রদর্শন, বিক্রি এবং দেখানোর জন্য রেলওয়ে স্টেশনগুলিতে নির্দিষ্ট স্টল, বহনযোগ্য স্টল ও ট্রলির মতো আউটলেট সরবরাহ করবে। কারিগর, কৃষক, আদিবাসী, তাঁতি, নিবন্ধিত মাইক্রো এন্টারপ্রাইজের সঙ্গে যুক্ত সদস্য, স্বনির্ভর গোষ্ঠীর সদস্য, মহিলা স্বনির্ভর গোষ্ঠীর সদস্য, সামাজিক সংস্থাগুলির সঙ্গে যুক্ত সদস্য, রাজ্য সরকারের সংস্থাগুলি ভারতীয় রেলের ওয়ান স্টেশন ওয়ান প্রোডাক্ট স্কিমের মাধ্যমে উপকৃত হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

এই স্কিমের সুবিধা নিতে যে কেউ তাদের এলাকার স্থানীয় পণ্য নিয়ে বিক্রির জন্য আসতে পারেন । এই ব্যাপারে তারা তাদের আবেদন প্ত্র যোগ্যতার নথি এবং যোগাযোগ নম্বর সহ সংশ্লিষ্ট স্টেশন মাস্টারের কাছে জমা দিতে পারবেন। পণ্যের মধ্যে প্রত্নবস্তু, হস্তশিল্প, টেক্সটাইল এবং তাঁত সামগ্রী, খেলনা, চামড়াজাত পণ্য, ঐতিহ্যবাহী যন্ত্রপাতি বা যন্ত্র, কৃষি পণ্য, পোশাক, রত্ন ও গহনা, প্রক্রিয়াজাত এবং আধা-প্রক্রিয়াজাত খাদ্য সামগ্রী অন্তর্ভুক্ত থাকতে পারে।

ওয়ান স্টেশন ওয়ান প্রোডাক্ট’স্কিমের বিশেষত্ব হল একটি নির্দিষ্ট স্টেশনের বিক্রিত পণ্য স্থানীয় হতে হবে। রেল মন্ত্রক নিশ্চিত করেছে যে বর্তমানে ভারতীয় রেলের ৭৮২টি স্টেশনে ৮৫০টি ‘ওয়ান স্টেশন ওয়ান প্রোডাক্ট (OSOP) আউটলেট চালু হয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকারের ‘ভোকাল ফর লোকাল’ দৃষ্টিভঙ্গি প্রচার করার উদ্দেশ্য নিয়ে ভারতীয় রেলওয়ের ২০২২ সালে ওয়ান স্টেশন ওয়ান প্রোডাক্ট স্কিম শুরু করে।এই ওয়ান স্টেশন ওয়ান প্রোডাক্ট’ (OSOP) স্কিমে রেজিস্ট্রেশন ফি দিতে হয়। আবেদনপত্রটি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে, আবেদনকারীকে রেলওয়েতে ১০০০ টাকা জমা দিতে হবে। যার পর ভারতীয় রেল তাকে ১৫ দিনের জন্য একটি অস্থায়ী স্টল বা ট্রলি বরাদ্দ করে।

খবরটি শেয়ার করুণ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন


মতুয়া আন্দোলনের এক মনোগ্রাহী ভাষ্য

অরবিন্দ পুরকাইত: আপাত বা গভীর কোনও স্তরেই তেমন কিছু তফাৎ পরিলক্ষিত না হলেও, বর্ণবাদী সমাজে একই পাড়ায় একেবারে প্রায় পাশাপাশি কেবল বিশেষ বিশেষ ঘরে জন্মানোর নিমিত্ত - শিক্ষাদীক্ষা পরের কথা – ভূমিষ্ঠ হওয়া থেকেই আজীবন একজন শ্রদ্ধা-ভক্তি-প্রণাম পাওয়ার অদৃশ্য শংসাপত্রের অধিকারী আর অন্যজনের সেবা-শ্রদ্ধা-ভক্তির অদৃশ্য দাসখতের দায়বদ্ধতা! কেন-না সৃষ্টিলগ্নেই একজন প্রজাপতি ব্রহ্মার মুখনিসৃত আর অন্যজন পদজ যে! সুতরাং মুখ থাকবে সবার উপরে, সবার নিচে পা – এতে অস্বাভাবিকতা বা আশ্চর্যের তো কিছু নেই! কিন্তু কেবল সেবা-শ্রদ্ধাতেই সব মিটে .....বিস্তারিত পড়ুন

কার্বন নিঃসরণ দ্রুত শেষ করার জন্য G7 ঐক্যমত

উত্তরাপথ: বিশ্বের সাতটি ধনী দেশের শক্তি ও পরিবেশ মন্ত্রীরা সম্প্রতি  জ্বালানি এবং পরিবেশগত ইস্যুতে উত্তর জাপানের শহর সাপোরোতে বৈঠক করেন।  G-7 বৈঠকে জড়ো হওয়া বিভিন্ন দেশের আধিকারিকরা তাদের প্রতিশ্রুতির রূপরেখা দিয়ে একটি কমিউনিক জারি করেছে। বৈঠকে বর্তমান সঞ্চিত জ্বালানি সংকট এবং ভবিষ্যৎ অর্থনৈতিক উন্নয়নকে সমান গুরুত্ব দিয়ে, আগামী ২০৫০ সালের মধ্যে নেট-জিরো গ্রিনহাউস গ্যাস (GHG) নির্গমনের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে। সমস্ত নেতারা দক্ষ, সাশ্রয়ী মূল্যের এবং দূষণ মুক্ত শক্তির উৎস সন্ধানের গুরুত্বকে স্বীকৃতি দিয়েছে। এর আগেও .....বিস্তারিত পড়ুন

কানারা ব্যাঙ্কের উপর ২.৯২ কোটি জরিমানা করল আরবিআই

উত্তরাপথ: সম্প্রতি ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক বিভিন্ন নিয়ম লঙ্ঘনের জন্য কানারা ব্যাঙ্কের উপর ২.৯২ কোটি টাকা জরিমানা করেছে। ২০২০ সালের জুলাই মাসে আরবিআই দ্বারা ব্যাঙ্কের একটি স্ক্রুটিনি করা হয়েছিল,তাতে যাচাই-বাছাইয়ের পরে, আরবিআই দেখতে পেয়েছে যে ব্যাঙ্ক ফ্লোটিং রেট খুচরা ঋণ এবং এমএসএমই-কে ঋণের সুদকে একটি বাহ্যিক বেঞ্চমার্কের সাথে সংযুক্ত করতে কানারা ব্যাঙ্ক ব্যর্থ হয়েছে এবং ২০২০-২১ আর্থিক বছরে অনুমোদিত ও পুনর্নবীকরণকৃত ফ্লোটিং রেট রুপি ঋণের সুদকে তার প্রান্তিক খরচের সাথে সংযুক্ত করতে ব্যর্থ হয়েছে।আরবিআই বলেছে, অযোগ্য সংস্থার নামে বেশ .....বিস্তারিত পড়ুন

Scroll to Top