Summer Vacation: রাজ্যে ছুটির ধাক্কায় পড়ুয়াদের পঠনপাঠন শিকেয় উঠেছে

উত্তরাপথ

প্রবল গরমের ধাক্কায় স্কুলে নির্ধারিত ছুটি ১১ দিন থেকে বেড়ে ৫১ দিন হয়েছে। বৃহস্পতিবারই আবার পঞ্চায়েত ভোটের নির্ঘণ্ট ঘোষিত হয়েছে। আর এই সবের মধ্যে আগামী বছরের মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের সিলেবাস আদৌ শেষ হবে কি না, তা নিয়েও সংশয় দেখা দিয়েছে। কেননা ২০২৪ সালে লোকসভা ভোটের কথা মাথায় রেখে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক অনেকটাই এগিয়ে আনা হয়েছে। রাজ্যের স্কুল শিক্ষকদের কথায়, পর্ষদের অ্যাকাডেমিক ক্যালেন্ডার অনুযায়ী, চলতি বছরে ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণির পড়ুয়াদের প্রথম  পরীক্ষা হয়েছে ১-১১ এপ্রিল। তাপপ্রবাহের কারণে স্কুলে প্রথম দফায় সাত দিন গরমের ছুটি পড়েছিল ১৭-২৪ এপ্রিল। তার পর এক সপ্তাহ ক্লাস করে ২ মে-১৪ জুন পর্যন্ত এর পর আবার  দ্বিতীয় দফায় গরমের ছুটি দেওয়া হয়েছে। এদিকে পঞ্চায়েত ভোটের কারণে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের ভোটের কাজে এবং স্কুলগুলি ভোটকেন্দ্র হিসেবে নেওয়া হলে, আরও বেশ কিছুদিন পড়াশোনায় ব্যাঘাত ঘটবে। এই পরিস্থিতিতে সিলেবাস কি করে শেষ হবে তা নিয়ে চিন্তায় শিক্ষক মহল।

এদিকে সংসদ মঙ্গলবারই জানিয়ে দিয়েছে, ১-১৫ ডিসেম্বর উচ্চ মাধ্যমিকের প্র্যাকটিক্যাল পরীক্ষা সারতে হবে। ফলে উচ্চ মাধ্যমিকের টেস্ট ১৫ নভেম্বরের মধ্যে করতেই হবে। যদিও মাধ্যমিকের টেস্ট পূর্ব নির্ধারিত সূচি মেনেই ২১-৩০ নভেম্বর রাখা হয়েছে। ১৮ অক্টোবর থেকে ১৬ নভেম্বর পুজোর ছুটি।এই অবস্থায় শিক্ষক-শিক্ষিকারা ভেবে কুলকিনারা পাচ্ছেন না মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের পাশাপাশি ষষ্ঠ থেকে নবম ও একাদশের পড়ুয়াদের সিলেবাস কী করে শেষ হবে। এই সব পড়ুয়াদের সিংহভাগেরই আবার কোভিডের কারণে নানা বিষয়ে বিস্তর লার্নিং গ্যাপ রয়েছে। এদিকে রাজ্যের কিছু জায়গায় অবিভাবকেরা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের  পিছিয়ে থাকা পড়ুয়াদের জন্য রেমেডিয়াল ক্লাসের দাবী জানাচ্ছেন।

খবরটি শেয়ার করুণ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন


আগামী ৩ বছরে শূন্য বর্জ্য হওয়ার পথে রাজস্থানের প্রথম গ্রাম

উত্তরাপথঃ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিভাগের একটি প্রকল্পের আওতায় আঁধি গ্রামে এই পরিবর্তন করা হচ্ছে।জয়পুর থেকে ৫০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত আন্ধি গ্রাম।আগামী তিন বছরে এই গ্রাম শূন্য বর্জ্য হয়ে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে ।আন্ধি গ্রামের এই সম্পূর্ণ রূপান্তরটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিভাগের একটি প্রকল্পের অধীনে করা হচ্ছে।  এই প্রকল্পটি সবুজ প্রযুক্তির হস্তক্ষেপ ব্যবহার করে আন্ধি গ্রামকে জিরো ওয়েস্ট মডেলে রূপান্তরিত করার কাজ চলছে ।  এই প্রকল্পটি ২১ মার্চ ২০২২ এ শুরু হয়েছে,  প্রকল্প পরিচালক বলেন, এ গ্রামের অবস্থা আগে খুবই খারাপ ছিল।আগে এই গ্রামের লোকেদের কঠিন বর্জ্য আলাদা করার কোনও ধারনা ছিল না । .....বিস্তারিত পড়ুন

শারদোৎসবের প্রস্তুতি শুরু কলকাতা পুরসভা এবং বন্দর কতৃপক্ষের

উত্তরাপথঃ শারদোৎসবের প্রস্তুতি শুরু প্রশাসনের, প্রতিমা বিসর্জনে এ বার বিশেষ বন্দোবস্ত করছে কলকাতা পুরসভা।এ বছর ২১ অক্টোবর দুর্গা পুজা শুরু এবং ২৪ অক্টোবর বিজয়া দশমী। বিজয়া দশমীর পর আরও দু’দিন প্রতিমা বিসর্জন করা যাবে বলে প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে। তাই সেই প্রতিমা বিসর্জন পর্ব মসৃণ করতে কলকাতা বন্দর এবং পুরসভা কর্তৃপক্ষ বেশ কিছু পদক্ষেপ নিতে চলেছে। সোমবার কলকাতা পুরসভায় প্রাক্‌-পুজোর বৈঠকে পুরসভার বিভিন্ন বিভাগের আধিকারিকদের পাশাপাশি, ছিলেন কলকাতা পুলিশ, সিইএসসি-সহ একাধিক সরকারি দফতরের আধিকারিকেরা। .....বিস্তারিত পড়ুন

মিশন ইম্পসিবল ডেড রেকনিং পার্ট ওয়ান রিভিউ: ৬১ বছর বয়সী টম ক্রুজের আবারও অনবদ্য

উত্তরাপথঃ মিশন ইম্পসিবল দর্শকদের একটি রোমাঞ্চকর যাত্রায় নিয়ে যায়। যেখানে সিনেমাটি  তিন ঘণ্টা দেখা অতিক্রান্ত হওয়ার পরও দর্শক এটি দেখতে চান। আর এটিই টম ক্রুজ এবং পরিচালক ক্রিস্টোফার ম্যাককোয়ারির আসল সাফল্য।গত বছর হলিউড সুপারস্টার টম ক্রুজ 'টপ গান ম্যাভেরিক' দিয়ে দর্শকদের মন্ত্রমুগ্ধ করার পর, এখন টম ক্রুজ এজেন্ট হান্টের চরিত্রে শক্তিশালী অ্যাকশন নিয়ে দর্শকদের সামনে এসেছেন। টম ক্রুজের 'মিশন ইম্পসিবল' ফিল্ম সিরিজের সপ্তম কিস্তি 'মিশন ইম্পসিবল- ডেড রেকনিং পার্ট ওয়ান' সদ্য ভারতে মুক্তি পেয়েছে । টম ক্রুজ এই ছবিতে তার জনপ্রিয় ইমেজ ধরে রেখেছেন এবং এই ছবিতে দর্শকদের অ্যাকশনের একটি বড় অংশ উপহার দিয়েছেন। মিশন ইম্পসিবল মুভিগুলি শুধুমাত্র টম ক্রুজের জন্য দেখা হয় এবং এই মুভিটি দেখা আবশ্যকও বটে৷ .....বিস্তারিত পড়ুন

রাজা মহম্মদ ও সি সেল মিউজিয়াম

প্রিয়াঙ্কা দত্তঃ রাজা মহম্মদ, এমন একজন মানুষের নাম, যার ব্যাক্তিগত ইচ্ছার কাছে হেরে যায় সব বাধা। ইচ্ছার চেয়ে বলা ভালো নেশা। সামুদ্রিক প্রাণীদের খোল সংগ্রহের নেশা। যা তাঁকে ছোটবেলা থেকেই ছুটিয়ে নিয়ে বেরিয়েছে প্রায় তিরিশ বছর ধরে। আর সেই দীর্ঘ পথের শেষে , তিনি সম্পূর্ন ব্যক্তিগত উদ্যোগে গড়ে তুলেছেন এশিয়ার বৃহত্তম ও পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম ব্যাক্তিগত সংগ্রহশালা। তাঁর প্রতিষ্ঠিত সি সেল মিউজিয়ামটি বর্তমানে চেন্নাইয়ের মহাবলিপূরম মন্দিরের সন্নিকটে অবস্থিত একটি জনপ্রিয় ট্যুরিস্ট স্পট। রাজা মহম্মদ ছোট্ট বেলা থেকেই  সমুদ্র তট থেকে সংগ্রহ করতেন বিভিন্ন সামুদ্রিক প্রাণীর দেহাংশ। কুড্ডালোর থেকে রামেশ্বরম এর সমুদ্রতট, সেখান থেকে জাপান, ইন্দোনেশিয়া, অস্ট্রেলিয়া, ফিলিপিন্স প্রভৃতি দেশে গিয়েছেন ব্যাক্তিগত উদ্যোগে। সংগ্রহ করেছেন অসাধারণ সব সামুদ্রিক .....বিস্তারিত পড়ুন

Scroll to Top