নতুন ফাইটার জেটকে সহায়তা করার ড্রোনের জন্য জন্য জাপান ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র AI গবেষণায় সম্মত হয়েছে

জাপান ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ড্রোনের জন্য কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার উপর যৌথ গবেষণা শুরু করতে সম্মত হয়েছে । তাদের আশা এই উন্নত প্রযুক্তির  ব্যবহার এশিয়ান দেশের পরবর্তী ফাইটার জেটের সাথে তাল মিলিয়ে কাজ করবে।জাপান ২০৩৫ সালের মধ্যে ব্রিটেন এবং ইতালির সাথে একটি পরবর্তী প্রজন্মের ফাইটার এয়ারক্রাফ্ট তৈরি করার পরিকল্পনা করেছে। যদিও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, জাপানের প্রধান নিরাপত্তা মিত্র, এই ফাইটার জেট প্রকল্পের অংশ নয়।

জাপান ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের যৌথ AI অধ্যয়নের উদ্দেশ্য হল “অত্যাধুনিক কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা এবং উন্নত মনুষ্যবিহীন বিমান যানের সাথে মেশিন লার্নিং একত্রিত করে বায়ুবাহিত যুদ্ধে বিপ্লব ঘটানো,” মার্কিন বিমান বাহিনী গত মাসে  চুক্তি স্বাক্ষরের পর জারি করা একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানিয়েছে । “এই যৌথ গবেষণায় বিকশিত AI জাপানের পরবর্তী ফাইটার এয়ারক্রাফ্টের পাশাপাশি চালিত ইউএভিতে প্রয়োগ করা হবে বলে আশা করা হচ্ছে “।  এটি জোর দিয়ে বলেছে যে সহযোগিতাটি জাপান-মার্কিন জোটের “প্রযুক্তিগত সুবিধা” বজায় রাখার জন্য কার্যকরী হবে। জাপান এবং মার্কিন সমন্বয়ে তৈরি ড্রোনগুলি যুদ্ধবিমানগুলির কাছাকাছি উড়ে ডেটা সংগ্রহ করতে ব্যবহার করা যাবে বলে আশা করা হচ্ছে।

ত্রিমুখী যুদ্ধবিমান উন্নয়ন চুক্তিটি নিয়ে ২০২২ সালের ডিসেম্বর থেকে আলোচনা শুরু হয়। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র দুই ন্যাটো সদস্যের সাথে জাপানের প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত সহযোগিতার ক্ষেত্রে সমর্থন ঘোষণা করেছিল কারণ এশিয়ান দেশটি ক্রমবর্ধমান ভাবে চীনের শক্তি বৃদ্ধির ফলে একটি গুরুতর নিরাপত্তাহীন পরিবেশের মুখোমুখি।

টোকিও প্রাথমিকভাবে নতুন করে তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে মার্কিন প্রতিরক্ষা সংস্থাগুলির সাথে সহযোগিতা করার চেষ্টা করেছিল কিন্তু তথ্য গোপনীয়তার বিষয়ে কঠোর মার্কিন নিয়মের কারণে তারা অন্যান্য অংশীদারদের সন্ধান করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। জাপান তার F-2 বিমানের উত্তরসূরি তৈরি করতে চায়, অন্যদিকে ব্রিটেন এবং ইতালি তাদের ইউরোফাইটার জেট প্রতিস্থাপন করতে চায়।প্রসঙ্গত ফাইটার জেট প্রোগ্রামটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ছাড়া অন্য দেশের সাথে জাপানের প্রথম যৌথ প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম উন্নয়ন চুক্তি।

খবরটি শেয়ার করুণ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন


Scroll to Top