G20 শীর্ষ সম্মেলনে আগত রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীদের সুরক্ষার জন্য প্রস্তুত ভারত

উত্তরাপথঃ G20 শীর্ষ সম্মেলনে-র প্রস্তুতিতে চূড়ান্ত ছোঁয়া দেওয়া হচ্ছে।  শনিবার অর্থাৎ ২-রা সেপ্টেম্বর থেকে বিভিন্ন নিরাপত্তা স্কোয়াড ও ট্রাফিক পুলিশের মহড়া শুরু হবে।  যেসব রুট দিয়ে বিদেশি অতিথিরা  যাবেন সেসব রুটে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে।  জরুরী পরিস্থিতিতে অন্যান্য দেশের রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীদের সুরক্ষার জন্য ‘ব্যালিস্টিক’ শিল্ড সহ ‘নিরাপদ’ ঘর প্রস্তুত করা হয়েছে।  যেসব জায়গায় বিদেশি অতিথিরা আসবেন সেসব জায়গায় এসব সেফ হাউস তৈরি করা হয়েছে।  এ ছাড়া নিরাপত্তা বাহিনী, বিশেষ করে ‘এনএসজি’কে ‘হেলি’ অভিযানের জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে।  দুই শতাধিক এনএসজি কমান্ডোকে এই অপারেশনের জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এই কমান্ডোরা যেকোনো জরুরি পরিস্থিতিতে হেলিকপ্টারের মাধ্যমে অভিযান পরিচালনা করবে।

আগামী ৯-১০ সেপ্টেম্বর G20 শীর্ষ সম্মেলনে অংশগ্রহণের জন্য দিল্লিতে আগত অতিথিদের চলাচলের জন্য বিভিন্ন সময় স্লট নির্ধারণ করা হয়েছে।  এই সম্মেলনে ১৯ টি দেশের রাষ্ট্রপতি ও  প্রধানেরা অংশ নেবেন।  এছাড়া ইউরোপীয় ইউনিয়নও এই সম্মেলনে অংশ নেবে।  এছাড়াও নয়টি দেশের প্রধানরা অতিথি দেশ হিসেবে জি-২০ বৈঠকে অংশ নেবেন।  গোয়েন্দা সংস্থা ‘আইবি’ বিদেশি অতিথিদের থাকার জন্য দিল্লি এবং এনসিআরের বেশ কিছু হোটেলের নিরাপত্তা  পর্যবেক্ষণ করেছে।  আগত অতিথিদের নিরাপত্তার দিক মাথায় রেখে তালিকায় ৩২টি হোটেলের নাম চূড়ান্ত করা হয়েছে। বেশ কিছু হোটেলের ছাদে হেলিকপ্টার পার্কিং করার সম্ভাবনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।  দিল্লিতে ২৩ টি এবং এনসিআরের ৯টি হোটেল নিরাপত্তা অডিট পাস করেছে।  এনসিআর-এর অন্তর্ভুক্ত বেশিরভাগ হোটেল গুরুগ্রামে অবস্থিত।

দিল্লির ২৩টি হোটেলে এবং এনসিআরের ৯টি হোটেলে বিদেশি অতিথিদের থাকার ব্যবস্থা করা হবে।  বিদেশী অতিথিরা যেখানে থাকবেন তার মধ্যে রয়েছে জাকির হুসেন মার্গের ওবেরয়, ইম্পেরিয়াল কনট প্লেস, সর্দার প্যাটেল মার্গের আইটিসি মোরিয়া, মান সিং রোডে তাজমহল, লীলা প্যালেস চাণক্যপুরী, তাজ প্যালেস এসপিএম মার্গ, অশোক হোটেল চাণক্যপুরী, ললিত বারাখাম্বা রোড। , শাংরিলা কনট প্লেস, হায়াত রিজেন্সি বিকাজি কামা প্লেস, লে মেরিডিয়ান কনট প্লেস, দ্য লোধি সিজিও কমপ্লেক্স, তাজ দ্বারকার বিভান্তা, শেরাটন সাকেত, দ্য সূর্য নিউ ফ্রেন্ডস কলোনি, পুলম্যান অ্যারোসিটি, আন্দাজ অ্যারোসিটি, রোসেট অ্যারোসিটি, ইরোসিটি নেহেরু প্লেস, রেডিয়েন্স ব্লু প্লাজা মহিপালপুর, ক্লারিজ 30 জানুয়ারী মার্গ, দ্য লীলা অ্যাম্বিয়েন্স গুরুগ্রাম, ট্রাইডেন্ট গুরুগ্রাম, দ্য ওবেরয় গুরুগ্রাম ইত্যাদি।

G20 শীর্ষ সম্মেলনে বিদেশি অতিথিদের যাতায়াতের জন্য মোট পাঁচটি রুট নির্ধারণ করা হয়েছে।  এর মধ্যে বিমানবন্দর থেকে হোটেল, হোটেল থেকে আইটিপিও, হোটেল থেকে রাজঘাট, রাজঘাট থেকে আইটিপিও এবং আইটিপিও থেকে হোটেল । এছাড়াও পুসা ইনস্টিটিউট এবং জয়পুর হাউস পর্যন্ত একটি পথ থাকবে।

নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞদের মতে, সব রাষ্ট্রপ্রধান ও প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তার প্রতিটি দিক মাথায় রাখা হয়েছে।  সব অতিথিদের জন্য বুলেটপ্রুফ গাড়ি থাকবে।  বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিদের জন্য ৩২টি কনভয় থাকবে।  অনেক দেশ তাদের সঙ্গে যানবাহনও নিয়ে এসেছে।  এর মধ্যে রয়েছে আমেরিকা, চীন, ফ্রান্স, তুরস্ক, সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং ইউরোপীয় ইউনিয়ন।  প্রগতি ময়দানে অনুষ্ঠানস্থলের পাশাপাশি তৈরি করা হয়েছে একটি হেলিপ্যাড।জরুরি পরিস্থিতিতে এনএসজি অপারেশনের জন্য হেলিকপ্টার মোতায়েন করা হয়েছে।

খবরটি শেয়ার করুণ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন


উত্তর ভারত জুড়ে প্রবল বৃষ্টি ও ভূমিধস

উত্তরাপথ: উত্তর ভারত জুড়ে প্রবল বৃষ্টিতে অন্তত ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে, এই অঞ্চলে ভূমিধস এবং আকস্মিক বন্যা হয়েছে, যা কয়েক দশকের মধ্যে সবচেয়ে বেশি বৃষ্টিপাত বলে সরকারি রিপোর্টে বলা হয়েছে। সপ্তাহান্তে জাতীয় রাজধানীতে ভারী বৃষ্টিপাতের পরে দিল্লির স্কুলগুলি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে, এবং হিমাচল প্রদেশ এবং উত্তরাখণ্ডে রাজ্যের লোকেদের প্রয়োজন ছাড়া বাড়ি থেকে বের না হতে বলেছে কর্তৃপক্ষ। হিমাচল প্রদেশ, উত্তরাখণ্ড, উত্তর প্রদেশ, জম্মু ও কাশ্মীর এবং পাঞ্জাব রাজ্যের উত্তরাঞ্চলীয় রাজ্যগুলিতে বন্যা ও ভূমিধসে অন্তত .....বিস্তারিত পড়ুন

Scroll to Top