কেন্দ্র থেকে ফের ৫.৭৫ লক্ষ ডোজ টিকা চাইবে রাজ্য

উত্তরাপথ

করোনার প্রকোপ কমতেই বুস্টার ডোজ় নেওয়ার প্রবণতায় ভাটার টান রাজ্যে। তবে সপ্তাহখানেক ধরেই দেশের পাশাপাশি রাজ্যেও ফের বাড়তে শুরু করেছে করোনা। এই পরিস্থিতিতে ফের বুস্টার নেওয়ার ক্ষেত্রে আমজনতার আগ্রহ বাড়বে। এমনটাই মনে করছে স্বাস্থ্যভবন। তবে সেই পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার মতো অবস্থা রাজ্যের নেই। কারণ, টিকার ভাঁড়ার এই মুর্হূতে প্রায় শূন্য। সে কারণেই চাহিদা অনুযায়ী টিকার যোগানের জন্য কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রককে রাজ্য চিঠি দিতে চলেছে বলে সরকারি সূত্রে খবর। অতীতের অভিজ্ঞতার কথা মাথায় রেখে কেন্দ্রের কাছে ৫ লক্ষ ডো়জ কোভিশিল্ড এবং ৭৫ হাজার ডোজ় ক্যোভাক্সিন চাওয়া হবে বলেই ঠিক হয়েছে। রাজ্যে করোনা টিকাকরণ কর্মসূচির সঙ্গে যুক্ত এক স্বাস্থ্যকর্তা বলেন, ‘মাঝে টিকা নেওয়ার লোক ছিল না, ফলে যা টিকা ভাঁড়ারে ছিল, তা যাতে মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে না যায়, আমরা তাই সেগুলো দিল্লি ফেরত পাঠিয়ে দিয়েছিলাম। তবে সংক্রমণ বাড়ায় চাহিদা বাড়তে পারে, সে কথা মাথায় রেখে আমরা পর্যাপ্ত টিকার আর্জি জানাব কেন্দ্রের কাছে। কারণ, আমাদের হাতে টিকা প্রায় নেই।’ তিনি জানান, চলতি সপ্তাহেই এ নিয়ে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রককে চিঠি দেওয়া হবে স্বাস্থ্যভবনের তরফে।
করোনা সংক্রমণের সময়ে রাজ্যে দৈনিক ৬-৭ লক্ষ মানুষের টিকাকরণ হতো। একদিনে প্রায় ১৪ লক্ষ টিকাকরণের নজিরও রয়েছে। করোনার প্রকোপ কমতেই সেই বুস্টার প্রাপকের সংখ্যা নেমে এসেছে ২০০-৫০০ মধ্যে। স্বাস্থ্যকর্তারা জানাচ্ছেন, সময় পেরিয়ে যাওয়ার পরেও অনেকেই নিচ্ছেন না বুস্টার ডোজ। যদিও চিকিৎসকরা বলছেন, করোনা এখনও পুরোপুরি বিদায় নেয়নি। দেশে এখনও করোনায় মৃত্যু হচ্ছে। তাই করোনার সঙ্গে লড়াই করতে বুস্টার অত্যন্ত জরুরি। স্বাস্থ্য দপ্তরেরও এ বিষয়ে জোরদার প্রচার করা জরুরি ।

খবরটি শেয়ার করুণ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন


Scroll to Top