Vitamin-D: ভিটামিন ডি’র সেবন হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমায়

উত্তরাপথ

ছবি সংগৃহীত

হার্ট অ্যাটাক এবং স্ট্রোক সহ কার্ডিওভাসকুলার রোগগুলি বর্তমানে বিশ্বব্যাপী মৃত্যুর একটি প্রধান কারণ।সম্প্রতি একটি ক্লিনিকাল ট্রায়ালে দেখা গেছে যে ভিটামিন ডি সম্পূরকগুলি ৬০ বছরের বেশি বয়সী লোকেদের হার্ট অ্যাটাক সহ যে কোনও বড় ধরনের কার্ডিওভাসকুলার অ্যাটাকের ঝুঁকি কমাতে পারে৷ গবেষণায় দেখা গেছে ভিটামিন ডি প্রায়ই “সানশাইন ভিটামিন” হিসাবে পরিচিত। এটি গ্রহণকারীদের মধ্যে স্ট্রোক সহ কার্ডিওভাসকুলার রোগ ৯% হ্রাস পেয়েছে । যা ২৮ জুন দ্য বিএমজে দ্বারা প্রকাশিত একটি ক্লিনিকাল ট্রায়ালে এই তথ্য প্রকাশিত হয়েছে।

ভিটামিন ডি(Vitamin-D) একটি আমাদের চর্মে দ্রবণীয় ভিটামিন যা আমাদের শরীর সূর্যালোকের সংস্পর্শে এলে উৎপন্ন করে। আবার কিছু খাবার যেমন চর্বিযুক্ত মাছ,  দুগ্ধজাত পণ্য এবং অন্যান্য পরিপূরকগুলিতেও পর্যাপ্ত পরিমাণে পাওয়া যায়। ভিটামিন ডি হাড়ের স্বাস্থ্য বজায় রাখতে, ইমিউন ফাংশনকে ঠিক করতে এবং শরীরে ক্যালসিয়াম ও ফসফরাসের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। যাইহোক, সাম্প্রতিক গবেষণাগুলি ইঙ্গিত করে যে ভিটামিন ডি কার্ডিওভাসকুলার স্বাস্থ্যের জন্যও খুব উপযোগী।

ভিটামিন ডি এবং কার্ডিওভাসকুলার স্বাস্থ্য:

ভিটামিন ডি রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণের সাথে যুক্ত। গবেষণায় দেখা গেছে যে পর্যাপ্ত ভিটামিন ডি  গ্রহণ উচ্চ রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করতে পারে, যা হার্ট অ্যাটাক এবং স্ট্রোকের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ ঝুঁকির কারণ।

ভিটামিন ডি দীর্ঘস্থায়ী প্রদাহ (inflammation) সহ কার্ডিওভাসকুলার রোগের বিকাশ এবং অগ্রগতি হ্রাস করে সেই সাথে এটি  রক্তনালীগুলিকে ক্ষতি থেকে রক্ষা করার ক্ষেত্রে বিশেষ  উপযোগী।  

এছাড়াও ইনসুলিন গ্রহণের পর এটি ইনসুলিনকে আমাদের শরীরে আরও ভালোভাবে কাজ করতে সাহায্য করে।সঠিক গ্লুকোজ বিপাক বজায় রাখার জন্য এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ইনসুলিন সংবেদনশীলতা উন্নত করে, ভিটামিন ডি সাপ্লিমেন্টেশন ডায়াবেটিসের মতো অবস্থার ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করতে পারে, যা পরবর্তীতে কার্ডিওভাসকুলার রোগের ঝুঁকি বাড়ায়।

সাম্প্রতিক গবেষণা থেকে আমরা জানতে পারি যে ভিটামিন ডি কার্ডিয়াক ফাংশনের উপর সরাসরি প্রভাব ফেলতে পারে। এটি হৃৎপিণ্ডের পেশীর সংকোচনকে উন্নত করতে পারে, হার্টের ছন্দ নিয়ন্ত্রণ করতে পারে এবং হার্ট ফেইলিউরের ঝুঁকি কমাতে পারে।

গবেষণা এবং প্রমাণ:

বেশ কয়েকটি গবেষণায় ভিটামিন ডি সম্পূরক এবং কার্ডিওভাসকুলার স্বাস্থ্যের মধ্যে সম্পর্ক অন্বেষণ করা হয়েছে, এবং তাতে বেশ কিছু আশাব্যঞ্জক ফলাফল  বেরিয়ে এসেছে ।

একাধিক মেটা-বিশ্লেষণে ভিটামিন ডি সাপ্লিমেন্টেশন এবং হার্ট অ্যাটাক এবং স্ট্রোক সহ বড় কার্ডিওভাসকুলার ইভেন্টের ঝুঁকি হ্রাসের মধ্যে একটি সম্পর্ক পাওয়া গেছে। এই বিশ্লেষণগুলি পরামর্শ দেয় যে সম্পূরকটি কার্ডিওভাসকুলার রোগের বিরুদ্ধে একটি প্রতিরক্ষামূলক প্রভাব ফেলতে পারে। তবে এলোমেলোভাবে নিয়ন্ত্রিত ট্রায়ালগুলিতে এমন কোনও প্রমাণ পাওয়া যায়নি যে ভিটামিন ডি সম্পূরকগুলি কার্ডিওভাসকুলার সমস্যাগুলিকে প্রতিরোধ করে।

এই অনিশ্চয়তাকে মোকাবেলা করার জন্য, অস্ট্রেলিয়ার গবেষকরা ৬০ ঊর্ধ্ব প্রাপ্তবয়স্কদের প্রতি মাসে একটি নির্দিষ্ট মাত্রায় ভিটামিন ডি এর পরিপূরক দিয়ে তারা তদন্ত করতে শুরু করেন এই মানুষগুলির কার্ডিওভাসকুলার স্বাস্থের কোনও পরিবর্তন হচ্ছে কিনা।

তাদের ডি-হেলথ ট্রায়াল ২০১৪ থেকে ২০২০পর্যন্ত পরিচালিত হয়েছিল এবং এতে ৬০-৮৪ বছর বয়সী ২১,৩১৫ অস্ট্রেলিয়ান জড়িত ছিল । এরপর গবেষক দলটি গবেষণায় অংশ গ্রহণকারীদের দুটি ভাগে ভাগ করেন। এক দল যারা ৬০,০০০ আইইউ ভিটামিন ডি (১০,৬৬২ অংশগ্রহণকারী) এবং  প্ল্যাসিবো (১০,৬৫৩ অংশগ্রহণকারী)তাঁরা প্রতিটি মাসের শুরুতে একটি করে ক্যাপসুল পেয়েছে ৫ বছর পর্যন্ত।

ট্রায়াল চলাকালীন, ১,৩৩৬ জন অংশগ্রহণকারী একটি বড় ধরনের কার্ডিওভাসকুলার সমস্যার সম্মুখীন হয়েছেন (প্ল্যাসিবো গ্রুপে ৬.৬%এবং ভিটামিন ডি গ্রুপে.৬%)। প্লাসিবো গ্রুপের তুলনায় ভিটামিন ডি-তে বড় ধরনের কার্ডিওভাসকুলার ইভেন্টের হার ৯% কম ছিল ।অন্যদিকে ভিটামিন ডি গ্রুপে হার্ট অ্যাটাকের হার ১৯% কম এবং করোনারি রিভাসকুলারাইজেশনের হার ১১% কম ছিল, তবে দুটি গ্রুপের মধ্যে স্ট্রোকের হারে কোনও পার্থক্য ছিল না।

গবেষকরা  স্বীকার করেছেন যে ঘটনাগুলির ফলাফল সমস্ত জনসংখ্যার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নাও হতে পারে, বিশেষ করে যেখানে মানুষের বেশী মাত্রায় ভিটামিন ডি এর ঘাটতি রয়েছে। তবে ফলাফলগুলি থেকে এটা স্পষ্ট যে পরিপূরকের মাধ্যমে সর্বোত্তম ভিটামিন ডি’র মাত্রা বজায় রেখে স্ট্রোক সহ কার্ডিওভাসকুলার রোগগুলির ঝুঁকি অনেকাংশে কমান সম্ভব ।

বিবেচনা এবং সুপারিশ:

যদিও হার্ট অ্যাটাক সহ কার্ডিওভাসকুলার স্মস্যাঝুঁকি কমাতে ভিটামিন ডি সম্পূরকের সম্ভাব্য সুবিধাগুলি রয়েছে , নিম্নলিখিত বিষয়গুলি বিবেচনা করা অপরিহার্য।

কার্ডিওভাসকুলার স্বাস্থ্যের জন্য ভিটামিন ডি সাপ্লিমেন্টেশনের উপযুক্ত ডোজ ঠিক কি হওয়া উচিত তা নিয়ে এখনও অধ্যয়ন করা হচ্ছে। তাই একজন পেশাদার চিকিৎসকের সাথে পরামর্শ করে ব্যক্তিগত চাহিদা এবং বিদ্যমান ভিটামিন ডি স্তরের উপর ভিত্তি করে উপযুক্ত ডোজ নির্ধারণ করা উচিত ।

 আবার বয়স, জাতিগততা, সূর্যের সংস্পর্শ এবং বিদ্যমান স্বাস্থ্য পরিস্থিতির মতো কারণের উপর ভিত্তি করে প্রতিটি ব্যক্তির প্রয়োজনীয়তা পরিবর্তিত হতে পারে। এক্ষেত্রে একজন চিকিৎসক প্রতিটি ব্যক্তির ব্যক্তিগত প্রয়োজন অনুসারে একটি পরিপূরক পরিকল্পনা তৈরি করে তাঁকে সহায়তা করতে পারে।

 এই সম্পূরকটি ছাড়াও নিয়মিত ব্যায়াম, একটি সুষম খাদ্য, এবং অন্যান্য প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা যেমন স্ট্রেস কম করা এবং ধূমপান ত্যাগ করা সামগ্রিক কার্ডিওভাসকুলার স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

হার্ট অ্যাটাক এবং বড় কার্ডিওভাসকুলার ইভেন্টগুলির ঝুঁকি কমাতে ভিটামিন ডি সম্পূরকের সম্ভাব্য প্রভাব গবেষণার ক্ষেত্রে একটি উল্লেখযোগ্য প্রাপ্তি। তবে সুনির্দিষ্ট নির্দেশিকা প্রতিষ্ঠার জন্য আরও অধ্যয়নের প্রয়োজন, তবে গবেষণাগুলি এখন পর্যন্ত পরামর্শ দেয় যে পরিপূরকের মাধ্যমে সর্বোত্তম স্তর বজায় রাখা প্রতিরোধমূলক যত্ন কৌশলগুলির ক্ষেত্রে একটি মূল্যবান সংযোজন হতে পারে। তবে সর্বদা ব্যক্তিগত কার্ডিওভাসকুলার স্বাস্থ্যের ব্যাপারে পরামর্শের জন্য একজন পেশাদার চিকিৎসকের পরামর্শ গ্রহণ করা গুরুত্বপূর্ণ।

খবরটি শেয়ার করুণ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন


বৈধ নথি ছাড়া প্লেনে ওঠার চেষ্টা এটি কি নিছক কৌতুহল মেটানো

উত্তরাপথঃ এটি কি নিছক কৌতুহল না কি কিশোর দুস্ক্রিয়তা। সম্প্রতি বাংলাদেশ এর শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পাসপোর্ট, টিকিট বা বোর্ডিং পাশ কোনও কিছু ছাড়াই জুনায়েদ নামের ১২ বছরের এক শিশু বৈধ নথি ছাড়া বিনা বাধায় কুয়েত এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে উঠে পড়ে। তবে এবারই প্রথম নয়, এর আগেও প্লেনে চড়তে ব্যর্থ হয়ে বাড়িতে ফিরে গেছে। এবার কৌশল পালটে বিমানবন্দরে ঢোকে শিশুটি। এ ঘটনায় বিমানবন্দরের ইমিগ্রেশন ও সিকিউরিটি বিভাগের ১০ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে কারণ দর্শাতে বলা  হয়েছে। গঠন করা হয়েছে পাঁচ সদস্যের একটি উচ্চপর্যায়ের তদন্ত কমিটি। যে এয়ারলাইন্সের ফ্লাইটে এ ঘটনা ঘটে, সেই কুয়েত এয়ারলাইন্সকেও শোকজ করা হয়েছে।  বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এম মফিদুর রহমান বলেছেন, ছেলেটি ব্রোকেন ফ্যামেলি .....বিস্তারিত পড়ুন

সম্পাদকীয়

বিশ্ব উস্নায়ন এবং তাকে কেন্দ্র করে জলবায়ু পরিবর্তন একবিংশ শতাব্দীর অন্যতম বড় চ্যালেঞ্জ। এটি  ধীরে ধীরে একাধিক উপায়ে মানব সমাজকে ব্যাপকভাবে প্রভাবিত করছে এবং অদূর ভবিষ্যতে এটি প্রায় অনিয়ন্ত্রিত হয়ে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে।ইতিমধ্যে এটি আমাদের পরিবেশ, অর্থনীতি এবং আমাদের জীবন যাত্রার উপর ব্যাপক ভাবে প্রভাব দেখাতে শুরু করেছে ।সদ্য হয়ে যাওয়া হিমাচল প্রদেশের বন্যা আমাদের সামনে বেশ কিছু প্রশ্ন তুলে দিল । এবছর হিমাচল প্রদেশে বর্ষাকালে রেকর্ড পরিমাণে বৃষ্টিপাত হয়েছে ,যা বিগত কয়েক বছরের তুলনায় বহু গুণ বেশী।  ভারতের আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, হিমাচল প্রদেশে ১ জুলাই থেকে ১২ জুলাই পর্যন্ত গড় বৃষ্টিপাত হয়েছে ২৪৯.৬ মিমি যা স্বাভাবিক গড় ৭৬.৬ মিমি থেকে প্রায় ৭০% বেশী .....বিস্তারিত পড়ুন

ঘোষণা হল ভারতের শীর্ষ বিজ্ঞান পুরস্কার শান্তি স্বরূপ ভাটনগর প্রাপকদের নাম  

উত্তরাপথঃ এটি আশ্চর্যজনকভাবে ২০২২ সালে, প্রথমবারের মতো, বিজ্ঞানে ভারতের শীর্ষ বার্ষিক পুরস্কার ঘোষণা করা হয়নি।এক বছর স্থগিত রাখার পর, সোমবার ২০২২ সালের শান্তি স্বরূপ ভাটনগর পুরস্কার ঘোষণা করা হয়, যেখানে ১২ জন তরুণ বিজ্ঞানীকে ভারতের শীর্ষ বিজ্ঞান পুরস্কারের জন্য নির্বাচিত করা হয়েছে।ভাটনগর পুরষ্কার, CSIR-এর প্রথম মহাপরিচালক শান্তি স্বরূপ ভাটনাগরের নামানুসারে, প্রতি বছর সাতটি বৈজ্ঞানিক শাখায় গবেষকদের অসামান্য কৃতিত্বের জন্য দেওয়া হয়। জীববিজ্ঞান, রসায়ন, গণিত, পদার্থবিদ্যা, চিকিৎসা, প্রকৌশল এবং পৃথিবী, বায়ুমণ্ডল, মহাসাগর এবং গ্রহ বিজ্ঞান - এর অধীনে ৪৫ বছর পর্যন্ত অসামান্য গবেষকদের নির্বাচন করা হয়। পুরস্কারে ৫ লক্ষ টাকা নগদ ও একটি প্রশংসাপত্র দেওয়া হয়। .....বিস্তারিত পড়ুন

টাইফুন ইউন-ইউং এর আজ জাপানের টোকাই অঞ্চলে প্রত্যাশিত ল্যান্ডফল

উত্তরাপথঃ জাপানের জনগণ টাইফুন নং ১৩ যা ইউন-ইউং নামে পরিচিত যা শুক্রবার বিকেলের দিকে টোকাই অঞ্চলে ল্যান্ডফল করবে বলে আশা করা হচ্ছে, যেখানে নাগোয়া অবস্থিত। জাপান ইতিমধ্যে এর আগমনের জন্য নিজেদের আগাম প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। প্রসঙ্গত গত কয়েকদিন ধরে ক্রমশ তীব্রতর হচ্ছিল টাইফুন ১৩। জাপানের আবহাওয়া সংস্থা বৃহস্পতিবার থেকে শনিবার টোকাই এবং কান্টো অঞ্চলে ভারী বৃষ্টিপাতের সতর্কতা জারি করছে, যা পরিবহন ব্যবস্থাকে প্রভাবিত করতে পারে।আবহাওয়া দপ্তরের মতে শুক্রবার সকাল ৬ টা নাগাদ ২৪ঘন্টা বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ইজু দ্বীপপুঞ্জে ২৫০ মিলিমিটার, টোকাই অঞ্চলে ১৫০ মিলিমিটার এবং কান্টো-কোশিন অঞ্চলে ১০০ মিলিমিটার হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। জাপানের আবহাওয়া সংস্থা (জেএমএ) .....বিস্তারিত পড়ুন

Scroll to Top