Nuclear battery রিচার্জ ছাড়াই ৫০ বছরের জন্য আপনার স্মার্টফোনকে চার্জে সক্ষম

উত্তরাপথঃ শক্তির চাহিদা সারা বিশ্বে ক্রমাগত বাড়ছে,আর এর একটি দীর্ঘস্থায়ী সমাধান হিসাবে একটি চীনা স্টার্টআপ ঘোষণা করেছে যে তারা এমন একটি বৈপ্লবিক ব্যাটারি তৈরি করেছে যা রিচার্জ করার প্রয়োজন ছাড়াই ৫০ বছরের জন্য শক্তি উৎপাদন করে স্মার্টফোনকে চার্জে করতে সক্ষম। আপাতদৃষ্টিতে ব্যাপারটাকে অবাস্তব মনে হলেও এটি এখন সত্য। বিজ্ঞানীরা পারমাণবিক ব্যাটারি (Nuclear battery) নামে পরিচিত একটি বৈপ্লবিক প্রযুক্তি তৈরি করেছেন, যা দীর্ঘ সময় ধরে সীমাহীন বিদ্যুৎ সরবরাহ করার ক্ষমতা রাখে।

প্রথাগত ব্যাটারির যা রাসায়নিক বিক্রিয়ার উপর নির্ভর করে বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য, বিপরীতে পারমাণবিক ব্যাটারি(Nuclear battery) তেজস্ক্রিয় ক্ষয়ের নীতিতে কাজ করে। এই ধারণাটি কারও কারও কাছে উদ্বেগজনক মনে হতে পারে, তবে এই পারমাণবিক ব্যাটারিগুলি কম শক্তির তেজস্ক্রিয় আইসোটোপগুলিতে কাজ করে, যা নিরাপদ । এটি তেজস্ক্রিয় ক্ষয়ের প্রাকৃতিক প্রক্রিয়ার সময় নিঃসৃত শক্তিকে কাজে লাগিয়ে কাজ করে।চীনা স্টার্টআপ কোম্পানির মতে,তাদের তৈরি পরবর্তী প্রজন্মের ব্যাটারি (next-generation battery) ইতিমধ্যে পাইলট পরীক্ষার পর্যায়ে প্রবেশ করেছে এবং অবশেষে ফোন এবং ড্রোনের মতো বাণিজ্যিক ভাবে ব্যবহারের জন্য ব্যাপকভাবে উৎপাদিত হবে।

পারমাণবিক ব্যাটারি Radioisotope thermoelectric generators বা (RTGs) একটি অপরিহার্য উপাদান। একটি RTG একটি তাপ উৎস নিয়ে গঠিত, সাধারণত তেজস্ক্রিয় পদার্থের একটি ছোট টুকরো, কোন ফুটো বা দূষণ প্রতিরোধ করার জন্য একটি উত্তাপযুক্ত ক্যাপসুলে আবদ্ধ থাকে। তেজস্ক্রিয় ক্ষয় দ্বারা উৎপন্ন তাপ তারপর একটি থার্মোইলেকট্রিক রূপান্তর সিস্টেম ব্যবহার করে বিদ্যুতে রূপান্তরিত হয়। এই প্রক্রিয়াটি অত্যন্ত দক্ষ এবং রক্ষণাবেক্ষণ বা জ্বালানী প্রতিস্থাপনের প্রয়োজনীয়তা দূর করে ।

পারমাণবিক ব্যাটারির (Nuclear battery) প্রধান সুবিধা হল তাদের অত্যন্ত দীর্ঘ জীবনকাল। যেখানে প্রচলিত ব্যাটারিগুলি সর্বাধিক কয়েক বছর স্থায়ী হতে জেখানেসেখানে একটি পারমাণবিক ব্যাটারি কয়েক দশক ধরে নির্ভরযোগ্যভাবে বিদ্যুৎ সরবরাহ করতে পারে। এই দীর্ঘায়ু উল্লেখযোগ্যভাবে ইলেকট্রনিক বর্জ্য কমাতে পারে, যা ক্রমবর্ধমান পরিবেশগত উদ্বেগের কারণ। সেই সাথে এর চার্জিং প্রয়োজনীয়তার অনুপস্থিতি এটিকে সর্বত্র ব্যবহারের বিশেষ করে দুর্গম স্থানে ব্যবহারের জন্য আদর্শ করে ।

এই ব্যাটারি যেহেতু পারমাণবিক শক্তির সাহায্যে চলে তাই তেজস্ক্রিয় ক্ষয়ের উচ্চ শক্তির ঘনত্বের কারণে, এমনকি অল্প পরিমাণ তেজস্ক্রিয় পদার্থও বর্ধিত সময়ের জন্য যথেষ্ট শক্তি উৎপন্ন করতে পারে। পারমাণবিক ব্যাটারির এই বৈশিষ্ট্যটি বিশেষত মহাকাশ অ্যাপ্লিকেশনগুলির ক্ষেত্রে মূল্যবান হিসাবে বিবেচিত হতে পারে কারণ সেখানে শক্তির প্রাপ্যতা সীমিত , যেমন স্যাটেলাইট বা ডিপ-স্পেস প্রোব। পারমাণবিক ব্যাটারি বৈজ্ঞানিক পরীক্ষা বা অন্বেষণকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রেও একটি নির্ভরযোগ্য বিকল্প হতে পারে।  

সম্ভবত পারমাণবিক ব্যাটারির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দিক হল এটি দীর্ঘ সময় ধরে চলে। জীবাশ্ম জ্বালানি বা  পুনর্নবীকরণযোগ্য শক্তির উৎসগুলি যেখানে  সূর্যের আলো বা বায়ুর মত বাহ্যিক কারণের উপর নির্ভর করে বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য,সেখানে পারমাণবিক ব্যাটারিগুলি স্বয়ংসম্পূর্ণ শক্তি জেনারেটর। তারা কোন ক্ষতিকারক গ্রিনহাউস গ্যাস নির্গমন করে না, যা তাদের একটি পরিবেশ বান্ধব বিকল্প হিসাবে তৈরি করে।এছাড়াও, পারমাণবিক ব্যাটারিতে ব্যবহৃত রেডিওআইসোটোপগুলি আগামী কয়েক দশক ধরে একটি স্থিতিশীল বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত করে। চীনা স্টার্টআপটির পক্ষ থেকে একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে দাবী করা হয়েছে দীর্ঘ জীবনের কারণে তাদের তৈরি ব্যাটারিগুলি মহাকাশ, এআই সরঞ্জাম, চিকিৎসা সরঞ্জাম, মাইক্রোপ্রসেসর, উন্নত সেন্সর, ছোট ড্রোন এবং মাইক্রো-রোবটের মতো একাধিক ক্ষেত্রে দীর্ঘস্থায়ী বিদ্যুৎ সরবরাহের চাহিদা মেটাতে পারবে।

 পারমাণবিক ব্যাটারির শক্তি উৎপাদনে বিপ্লব ঘটানোর সম্ভাবনা রয়েছে ,তবে সতর্কতার সাথে এর বাস্তবায়নের প্রয়োজন আছে।তবে এই শক্তিশালী প্রযুক্তির দায়িত্বশীল ব্যবহার নিশ্চিত করার জন্য যথাযথ নিয়ন্ত্রণ এবং তদারকি অপরিহার্য।

খবরটি শেয়ার করুণ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন


Renewable Energy: জাপানি প্রধানমন্ত্রী সৌদি আরব এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের কাছে নবায়নযোগ্য শক্তি প্রযুক্তির প্রস্তাব করেছেন

উত্তরাপথ: সম্প্রতি জাপানের প্রধানমন্ত্রী ইয়োশিহিদে সুগা, সৌদি আরব এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের (ইউএই) সাথে নবায়নযোগ্য শক্তিতে (Renewable Energy) দেশের উন্নত প্রযুক্তি ভাগ করার প্রস্তাব করেছেন। মূলত  জলবায়ু পরিবর্তন প্রশমিত করার এবং জীবাশ্ম জ্বালানীর উপর নির্ভরতা হ্রাস করার ক্ষেত্রে এই পদক্ষেপ বলে মনে করা হচ্ছে । সৌদি আরব এবং সংযুক্ত আরব আমিরাত দীর্ঘদিন ধরে তাদের তেল এবং প্রাকৃতিক গ্যাসের বিশাল মজুদের জন্য পরিচিত, যা তাদের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি ও উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে। বর্তমানে উভয় দেশ তাদের কার্বন পদচিহ্ন (Carbon Emission) কমাতে এবং পরিবর্তিত পরিস্থিতির সাথে খাপ খাইয়ে নিতে তাদের শক্তির উৎসগুলির পরিবর্তনে আগ্রহী .....বিস্তারিত পড়ুন

উত্তর ভারত জুড়ে প্রবল বৃষ্টি ও ভূমিধস

উত্তরাপথ: উত্তর ভারত জুড়ে প্রবল বৃষ্টিতে অন্তত ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে, এই অঞ্চলে ভূমিধস এবং আকস্মিক বন্যা হয়েছে, যা কয়েক দশকের মধ্যে সবচেয়ে বেশি বৃষ্টিপাত বলে সরকারি রিপোর্টে বলা হয়েছে। সপ্তাহান্তে জাতীয় রাজধানীতে ভারী বৃষ্টিপাতের পরে দিল্লির স্কুলগুলি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে, এবং হিমাচল প্রদেশ এবং উত্তরাখণ্ডে রাজ্যের লোকেদের প্রয়োজন ছাড়া বাড়ি থেকে বের না হতে বলেছে কর্তৃপক্ষ। হিমাচল প্রদেশ, উত্তরাখণ্ড, উত্তর প্রদেশ, জম্মু ও কাশ্মীর এবং পাঞ্জাব রাজ্যের উত্তরাঞ্চলীয় রাজ্যগুলিতে বন্যা ও ভূমিধসে অন্তত .....বিস্তারিত পড়ুন

Scroll to Top