আদৌ  বিরোধী ঐক্য সম্ভব? 

উত্তরাপথ

যে কোনো গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক ব্যবস্থায় সুস্থ গণতন্ত্রের কার্যকারিতার জন্য শক্তিশালী বিরোধী দলের উপস্থিতি অপরিহার্য। বিরোধী দলগুলো ক্ষমতাসীন দলকে জবাবদিহি করতে, বিকল্প দৃষ্টিভঙ্গি প্রদান এবং বিকল্প সরকার হিসেবে নিজেদের উপস্থাপনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। তবে ক্ষমতাসীন দলের বিরুদ্ধে বিরোধী দলগুলোর ঐক্য প্রায়ই জল্পনা-কল্পনা ও বিতর্কের বিষয় হয়ে থেকে যায়। এই প্রতিবেদনের লক্ষ্য কেন্দ্রের ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে ‘বিরোধী ঐক্যে’র সম্ভাবনা নিয়ে আলোচনা করা ।

বিরোধী ঐক্যের সম্ভাবনা নির্ধারণকারী প্রাথমিক কারণগুলির মধ্যে একটি হল ,একটি সাধারণ আদর্শগত ভিত্তির উপস্থিতি। বিরোধী দলগুলো যদি একই ধরনের মূল্যবোধ, নীতি ও নীতির উদ্দেশ্য ভাগ করে নেয়, তাহলে তাদের পক্ষে একত্রিত হয়ে ক্ষমতাসীন দলের বিরুদ্ধে ঐক্যফ্রন্ট গঠন করে লড়াই করা সহজ হয়ে যায়। সদ্য অনুষ্ঠিত পাটনায় ১৫ টি ভিন্ন রাজনৈতিক মতাদর্শগত দল কেন্দ্রের মোদী সরকারের বিরুদ্ধে বিরোধী ঐক্যের সম্ভাবনা নিয়ে প্রথম পর্যায়ের বৈঠকে বসেন ।যদিও সেখান থেকে এখনো কোনও সমাধান সুত্র বেরিয়ে আসেনি তবে এবিষয়ে কিছু বলার আগে আমাদের পরবর্তী বৈঠক যা এই মাসের ১৩-১৪ তারিখ বেঙ্গালুরুতে হওয়ার  কথা তাঁর জন্য আমাদের অপেক্ষা করতে হবে।

বিরোধী ঐক্যের ক্ষেত্রে আরেকটি বড় বাঁধা হল বিরোধী দলগুলির নিজস্ব রাজনৈতিক উচ্চাকাঙ্ক্ষা এবং আকাঙ্ক্ষা । এই উচ্চাকাঙ্ক্ষাগুলি এর আগের লোকসভা নির্বাচনে বিরোধী ঐক্য গড়তে দেয়নি, কারণ দলগুলি সম্মিলিত পদক্ষেপের চেয়ে তাদের নিজ নিজ রাজ্যে নিজেদের পার্টির স্বার্থকে অগ্রাধিকার  দিয়েছিল। নেতৃত্বের আকাঙ্খা, নির্বাচনী কৌশল এবং দলীয় মতাদর্শের পার্থক্য আগামী দিনেও বিরোধী ঐক্যের জন্য চ্যালেঞ্জ তৈরি করতে পারে।

 বিরোধী দলগুলির এই জোট যেহেতু একটি নির্বাচন ভিত্তিক জোট।তাই নির্বাচনে জয়লাভ এবং সরকার গঠনের প্রেক্ষাপটে এই জোটগুলি পরিচালিত হয়। বাকি সময় জোটের দলগুলি তাদের স্বতন্ত্র পরিচয় হারানোর ভয়ে একে অন্যদের সাথে সারিবদ্ধ হতে দ্বিধা করতে পারে। এছাড়াও বিভিন্ন বিরোধী দলের নেতাদের মধ্যে ব্যক্তিগত শত্রুতাও বিরোধী ঐক্যকে বাধাগ্রস্ত করতে পারে।

কংগ্রেস এবং আম আদমি পার্টিকে বাদ দিলে বিরোধী দলগুলির সবগুলি যেহেতু  আঞ্চলিক দল তাই তাদের নিজস্ব আঞ্চলিক এজেন্ডা থাকে। এসব আঞ্চলিক আকাঙ্খা কখনো কখনো জাতীয় পর্যায়ের বিরোধী ঐক্যের ক্ষেত্রে বাঁধা হয়ে দাঁড়ায়।কেন্দ্রের বিরুদ্ধে জোট গঠনে ১৫ টি দলের মধ্যে যেমন তৃণমূল রয়েছে ,তেমন কংগ্রেসও রয়েছে আবার বাম দলগুলিও রয়ছে।পশ্চিমবঙ্গে কংগ্রেস ও বাম একত্রে তৃণ্মুলের বিরুদ্ধে লড়াই করছে। তাই আগামী লোকসভা নির্বাচনের আগে বিজেপির বিরুদ্ধে কিভাবে পশ্চিমবঙ্গে ওয়ান ইজ টু ওয়ান প্রার্থী দিয়ে লড়াই এর কৌশল ঠিক হয় তাঁর উপর নির্ভর করবে এই রাজ্যে জোট গঠনের সম্ভাবনা।

যদিও আমাদের দেশে  বিরোধী দলগুলির মধ্যে সম্পূর্ণ ঐক্য অর্জন করা চ্যালেঞ্জিং,তবে ইতিহাসে এমন উদাহরণ রয়েছে যেখানে বিরোধী দলগুলি সফলভাবে ক্ষমতাসীন দলকে চ্যালেঞ্জ করার জন্য একত্রিত হয়েছে। বিরোধী ঐক্যের মাত্রা নির্ভর করবে দলগুলোর নিজেদের মতভেদ কাটিয়ে ওঠে, কার্যকর বিরোধী দল হিসাবে কতটা ভোটারদের সামনে নিজেদের একটি ঐক্যফ্রন্ট হিসাবে উপস্থাপন করতে পারে তার উপর।

খবরটি শেয়ার করুণ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন


NASA Carbon Emission: পৃথিবী কার্বন ডাই অক্সাইড শোষণ করার চেয়ে বেশি নির্গত করছে

উত্তরাপথঃ কার্বন নির্গমন (NASA Carbon Emission) সম্পর্কে নাসার সর্বশেষ আবিষ্কার পৃথিবীর জন্য এক সতর্কতা সংকেত। মহাকাশ সংস্থার মতে, পৃথিবী কার্বন ডাই অক্সাইড শোষণ করার চেয়ে বেশি নির্গত করছে, যার ফলে গ্রিনহাউস গ্যাসের বায়ুমণ্ডলীয় ঘনত্ব উল্লেখযোগ্য বৃদ্ধি পাচ্ছে। NASA এর এই আবিষ্কারটি জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য একটি উল্লেখযোগ্য কারণ হিসাবে দেখা যেতে পারে, সেইসাথে কার্বন নিঃসরণ কমানোর জন্য জরুরি পদক্ষেপের প্রয়োজনীয়তার উপর আলোকপাত করেছে।নাসার সর্বশেষ গবেষণায় যে তথ্য উঠে এসেছে তাতে পৃথিবীর মহাসাগর এবং ভূমি-ভিত্তিক বাস্তুতন্ত্র আগের চেয়ে কম কার্বন ডাই অক্সাইড শোষণ করছে। গবেষণায় দেখা গেছে যে গত এক দশকে ভূমি এবং মহাসাগর দ্বারা শোষিত কার্বন ডাই অক্সাইডের পরিমাণ ৫% হ্রাস পেয়েছে, যার ফলে গ্যাসের বায়ুমণ্ডলীয় ঘনত্ব বৃদ্ধি পেয়েছে। .....বিস্তারিত পড়ুন

World Children's Day: সত্যিই কি ‘বিশ্ব শিশু দিবস´পালনের কোনও যৌক্তিকতা আছে ?

প্রীতি গুপ্তাঃ হাতে গোনা আর মাত্র কয়েকটি দিন তারপর ১৪ নভেম্বর আমাদের দেশ সহ সারা বিশ্বজুড়ে  পালন করা হবে ‘বিশ্ব শিশু দিবস´(World Children's Day)।এই দিনটি শিশুদের মঙ্গলের জন্য, তাদের ভবিষ্যতের জন্য একটি অনুকূল বিশ্ব তৈরি করার প্রচেষ্টার একটি দিন।কিন্তু প্রশ্ন,সত্যি কি হাজার হাজার কোটি টাকা খরচ করে সারা বিশ্ব জুড়ে শিশু দিবস পালন করার কোনও যৌক্তিকতা আছে? আদৌ কি এর কোনও লাভ আমরা আমাদের প্রান্তিক স্তরের শিশুদের কাছে পৌঁছে দিতে পেরেছি ? সম্প্রতি কাজের প্রয়োজনে রাজস্থানের উদয়পুর শহরে আসা। আমরা সবাই জানি উদয়পুর বিখ্যাত তার হ্রদের কারণে । এখানকার স্থানীয় থেকে পর্যটক সকলেই এই সুন্দর হ্রদগুলির আকর্ষণে বারবার ছুঁটে যায়। ‘ফতে সাহেব লেক’ রাজস্থানের উদয়পুরের এক বিখ্যাত পর্যটক স্থল।এখানে বহু মানুষ সকাল- বিকেল এই লেকের চার ধারে হাঁটাহাঁটি করতে বেরিয়ে পড়ে। সেভাবেই দুই দিন আগে বিকেলে হঠাৎ করে বেরিয়ে পড়লাম ‘ফতে সাহেব লেকের ধারে হাঁটার উদ্দেশ্য নিয়ে। হাঁটার মাঝখানে হঠাৎ করে একটি বাচ্চাছেলে আওয়াজ করে ডাকছে ,বললাম কিছু বলবি? সে বলল একটু দাঁড়াতে। ও ছুটে গিয়ে হাতে করে কয়েকটি বেলুন নিয়ে এসে হাজির । সে বারবার বেলুন কেনার অনুরোধ জানাতে লাগল। হাতে অন্য কাজের চাপ নেই অনেকটা অবসর সময় তাই আমি অনেকটা সাংবাদিক সুলভ মন নিয়ে বললাম ঠিক আছে আমি তোর বেলুন নেব ,কিন্তু তার আগে আমি  তোকে যা বলব তার তার ঠিক ঠিক উত্তর দিতে হবে। সে খুশী খুশী রাজি হয়ে গেল । .....বিস্তারিত পড়ুন

Free Gift in Politics: ভারতের নির্বাচন ও ফ্রি গিফট সংস্কৃতি

উত্তরাপথঃ ফ্রি গিফট (Free gift in politics)এর রাজনীতি সম্প্রতি ভারতের নির্বাচনী রাজনীতিতে একটি বিশিষ্ট ভূমিকা পালন করছে। বিনামূল্যে কোটি কোটি জনগণকে উপহার প্রদান যা রাজকোষের উপর অতিরিক্ত বোঝা ফেলবে এই সত্যটি জানা সত্ত্বেও, রাজনৈতিক দলগুলি ভোটারদের আকৃষ্ট করার জন্য ফ্রি গিফট (Free gift in politics) দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে নির্বাচনের দৌড়ে একে অপরের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে।এক সময় প্রয়াত তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী জে জয়ললিতা বিনামূল্যে শাড়ি, প্রেসার কুকার, ওয়াশিং মেশিন, টেলিভিশন সেট ইত্যাদির প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভোটের আগে যে বিনামূল্যের সংস্কৃতি শুরু করেছিলেন তা পরবর্তী কালে অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলি দ্রুত অনুসরণ করেছিল। এরপর ২০১৫ সালে আম আদমি পার্টি নেতৃত্ব দিল্লির ভোটারদের কাছে বিনামূল্যে বিদ্যুৎ, জল, বাস ভ্রমণের প্রতিশ্রুতি দিয়ে দিল্লির বিধানসভা নির্বাচনে জয়লাভ করেছিল। .....বিস্তারিত পড়ুন

Side effects of vitamin: ভিটামিনের আধিক্য আপনার জন্য ক্ষতিকর হতে পারে

উত্তরাপথঃ ভিটামিনের প্রয়োজনীয়তা আমরা সবাই নিশ্চয়ই ছোটবেলা থেকে শুনে আসছি যে সুস্থ থাকতে হলে শরীরে প্রয়োজনীয় সব ভিটামিন থাকা খুবই জরুরি।  ভিটামিন আমাদের সুস্থ করার পাশাপাশি আমাদের সমগ্র শরীরের বিকাশের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।  যাইহোক, এটি অতিরিক্ত পরিমাণে খাওয়া আমাদের জন্য ক্ষতিকারকও হতে পারে।  আসুন জেনে নিই অতিরিক্ত ভিটামিন গ্রহণের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া (Side effects of vitamin)সুস্থ থাকার জন্য শরীরে সব ধরনের পুষ্টি থাকা খুবই জরুরি।  এ কারণেই বয়স্ক থেকে শুরু করে চিকিৎসক, সবাই আমাদেরকে সুষম ও পুষ্টিসমৃদ্ধ খাবার খাওয়ার পরামর্শ দেন।  সমস্ত পুষ্টি উপাদান আমাদের শরীরকে বিভিন্ন উপায়ে সুস্থ করে তোলে।  এর মধ্যে ভিটামিন একটি, যা আমাদের সুস্থ থাকতে সাহায্য করে। .....বিস্তারিত পড়ুন

Scroll to Top