গল্ফ খেলোয়াড়দের মধ্যে ত্বকের ক্যান্সারের ঝুঁকি ২৪০% বৃদ্ধি পেয়েছে

গল্ফ খোলা জায়গায় উপভোগ করার মত একটি খেলা ছবি -এক্স

উত্তরাপথঃ গল্ফ হল সকলের জন্য খোলা জায়গায় উপভোগ করার মত একটি খেলা, যা বিভিন্ন প্রজন্ম, ক্ষমতা এবং ব্যাকগ্রাউন্ডের লোকেদের মধ্যে ব্যবধান দূর করে।  এটি মানুষকে শারীরিক ও মানসিক উভয় ক্ষেত্রে সুস্থ্য রাখে । তবে , গল্ফ খেলার জন্য প্রস্তুত হওয়ার আগে সাম্প্রতিক গবেষণাটি পুনর্বিবেচনা করা দরকার। সম্প্রতি ইউনিভার্সিটি অফ সাউথ অস্ট্রেলিয়ার গবেষণায় দেখানো হয়েছে যে গলফা্রদের সামগ্রিক জনসংখ্যার তুলনায় ত্বকের ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি বেশী।সমীক্ষাটি দেখায় যে বিশ্বের চারজনের মধ্যে একজন গলফার ত্বকের ক্যান্সারে আক্রান্ত।

অস্ট্রেলিয়ান গল্ফিং জনসংখ্যার মধ্যে ত্বকের ক্যান্সারের প্রাদুর্ভাব অন্বেষণ করার জন্য এই গবেষণাটিই প্রথম। গবেষকদলের মতে আমরা দেখেছি যে গলফারদের ২৭% – বা চারজনের মধ্যে একজন –অর্থাৎ সাধারণ জনসংখ্যার ৭% এই ত্বকের ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছে।

গবেষকদের দ্বারা পরিচালিত একটি সাম্প্রতিক গবেষণায় একটি নির্দিষ্ট খেলায় অংশগ্রহণ এবং ত্বকের ক্যান্সারের ঘটনাগুলির মধ্যে পারস্পরিক সম্পর্ক পরীক্ষা করা হয়েছে। গবেষণাটি একটি বড় অংশের জনসংখ্যার উপর করা হয় এবং দীর্ঘ সময় ধরে করা হয়, যা গবেষণার, ফলাফলগুলিকে সমর্থন করার জন্য শক্তিশালী প্রমাণ প্রদান করে।

গবেষণার ফলাফলগুলি প্রকাশ করেছে যে যারা নিয়মিত গল্ফ খেলায় অংশ নেয় তাদের মধ্যে যারা নিয়মিত খেলেন না তাদের তুলনায় তাদের ত্বকের ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি ২৪০% বৃদ্ধি পায়।খেলাধুলার সাথে সম্পর্কিত বিভিন্ন বাইরের ক্রিয়াকলাপ যেমন প্রশিক্ষণ সেশন, প্রতিযোগিতা এবং ইভেন্টগুলির সময় দীর্ঘক্ষণ সূর্যের এক্সপোজার ত্বকের ক্যান্সারের ঝুঁকি আরও বাড়িয়ে দেয়।

 গবেষণার রিপোর্টটি সামনে আসার পর,অস্ট্রেলিয়াতে বিশেষত গরম কালে স্মার্ট প্রচারাভিযানগুলি বা অতিরিক্ত সূর্যের আলো থেকে বাঁচার উপায় গুলি প্রচারের উপর বেশী গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে, যাতে গল্ফ খেলোয়াড়দের ত্বকের ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার হাত থেকে রক্ষা করা যায়।কারণ দীর্ঘ সময় তীব্র সূর্যের এক্সপোজার ক্ষতিকারক UV বিকিরণ এক্সপোজারের ঝুঁকিকে উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি করে, যা ত্বকের ক্যান্সারের একটি পরিচিত কারণ। তবে গলফারদের এই সমস্যা শুধুমাত্র অস্ট্রেলিয়াতে সীমাবদ্ধ নেই , গল্ফ খেলোয়াড়দের এই সমস্যা সর্বত্র।

এই খেলায় অংশগ্রহণকারীরা সূর্য আলো থেকে সুরক্ষার চেয়ে তাদের পারফরম্যান্সকে বেশী অগ্রাধিকার দেয়, যার ফলে সানস্ক্রিন, টুপি এবং প্রতিরক্ষামূলক পোশাকের মতো প্রতিরক্ষামূলক ব্যবস্থাগুলির ঠিক মত ব্যবহার করে না। সতর্কতার এই অভাব ত্বকের ক্যান্সারের ঝুঁকিকে আরও বাড়িয়ে তোলে।খেলাটি যেহেতু খোলা-আকাশের নীচে খেলা হয়, সেখানে অংশগ্রহণকারীরা সরাসরি সূর্যালোকের সংস্পর্শে আসে। ক্ষতিকারক UV বিকিরণ ত্বকের ক্যান্সারের বিকাশের ঝুঁকি অধিক পরিমাণে বাড়ায়।

ত্বকের ক্যান্সারের সম্ভাবনা কমাতে এই খেলার সাথে যুক্ত ঝুঁকি সম্পর্কে ক্রীড়াবিদ, কোচ এবং ক্রীড়া সংস্থাগুলির মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি করা অপরিহার্য। শিক্ষামূলক প্রচারাভিযানে সূর্যের ক্ষতিকারক UV বিকিরণ থেকে ত্বককে বাঁচানোর গুরুত্বের উপর জোর দেওয়া উচিত এবং অতিবেগুনী বিকিরণের এক্সপোজার কমানোর জন্য কার্যকর ব্যবস্থাগুলির নির্দেশিকা প্রদান করা উচিত।এর মধ্যে বাধ্যতামূলক সানস্ক্রিন প্রয়োগ, উপযুক্ত পোশাক, এবং বাইরের ইভেন্টের সময় বিরতির জন্য ছায়াযুক্ত এলাকা নির্দিষ্ট করা উচিত।

 এছাড়াও ক্রীড়া সংস্থা এবং চর্মরোগ বিশেষজ্ঞদের মধ্যে সহযোগিতা স্থাপন করা এবং ইউভি-ব্লকিং কাপড় এবং উন্নত সানস্ক্রিন ক্রীড়াবিদদের জন্য সূর্যের ক্ষতিকারক UV বিকিরণ থেকে ত্বকের সুরক্ষা উন্নত করতে সাহায্য করতে সাহায্য করতে পারে।  

গল্ফ এবং ত্বকের ক্যান্সারের ঝুঁকি ২৪০% বৃদ্ধির মধ্যে নতুন পাওয়া যোগসূত্রের ভিত্তিতে অবিলম্বে মনোযোগ এবং পদক্ষেপ গ্রহণ করা জরুরী।ক্রিয়াবিদদের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি করে, সূর্যের ক্ষতিকারক UV বিকিরণ থেকে ত্বককে  রক্ষা করার নীতিগুলি বাস্তবায়ন করে, এই খেলায় নিযুক্ত ক্রীড়াবিদ এবং ব্যক্তিদের রক্ষা করতে পারি।

Reference: “Golf participants in Australia have a higher lifetime prevalence of skin cancer compared with the general population” by Brad Stenner, Terry Boyle, Daryll Archibald, Nigel Arden, Roger Hawkes and Stephanie Filbay, 1 July 2023, BMJ Open Sport & Exercise Medicine. DOI: 10.1136/bmjsem-2023-001597

খবরটি শেয়ার করুণ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন


প্রাপ্তবয়স্কদের স্মৃতিশক্তি এবং চিন্তাভাবনা হ্রাস সমস্যার সমাধানের ক্ষেত্রে প্রোবায়োটিক

উত্তরাপথঃ সারা বিশ্বের জনসংখ্যার বয়স বৃদ্ধির সাথে স্মৃতিশক্তি এবং চিন্তাভাবনা হ্রাস এবং ডিমেনশিয়ার মতো নিউরোডিজেনারেটিভ রোগের প্রকোপ বাড়ছে৷ তাদের এই  সমস্যাগুলি যে কেবল তাদের একার সমস্যা তা নয় ,এটি ধীরে ধীরে পুরো পারিবারিক সমস্যার আকার নেয়।সম্প্রতি বয়স্ক প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে মস্তিষ্কের কার্যকারিতাকে পুনরুদ্ধার করার জন্য গবেষকদের মধ্যে কার্যকর কৌশল খোঁজার আগ্রহ বাড়ছে।বর্তমানে বেশীরভাগ গবেষক মস্তিস্কের স্বাস্থ্য উদ্ধারের ক্ষেত্রে প্রোবায়োটিকের সম্ভাব্য ভূমিকা নিয়ে গবেষণা করছেন । এখন খুব স্বাভাবিকভাবেই একটি প্রশ্ন আসে প্রোবায়োটিক কি? কেনই বা গবেষকরা মস্তিস্কের স্বাস্থ্য উদ্ধারের ক্ষেত্রে প্রোবায়োটিকের ভূমিকা নিয়ে গবেষণা করছেন । .....বিস্তারিত পড়ুন

ফ্লিম রিভিউ -ওপেনহাইমার

উত্তরাপথ: বিখ্যাত চলচ্চিত্র নির্মাতা ক্রিস্টোফার নোলান দ্বারা পরিচালিত”ওপেনহাইমার” একটি মাস্টারপিস মুভি। ছবিতে জে. রবার্ট ওপেনহেইমার, এক নামকরা পদার্থবিজ্ঞানী, যিনি দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় পারমাণবিক বোমার বিকাশে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন।এই সিনেমায় ওপেনহাইমার এর জটিল জীবনকে বর্ণনা করা হয়েছে। সেই হিসেবে 'ওপেনহাইমার'কে বায়োপিক বলা যেতে পারে।  কারণ এটি একজন মানুষের গল্প। এই ছবির গল্প তিনটি পর্যায়ে বিভক্ত।ছবির শুরুতে পারমাণবিক বোমা তৈরির আবেগের কথা বলা হয়েছে।  যেখানে নায়ক কিছু না ভেবে নিবেদিতপ্রাণভাবে এমন একটি অস্ত্র তৈরিতে নিয়োজিত থাকে যা বিশ্বকে ধ্বংস করতে পারে।  অস্ত্র তৈরি হওয়ার পর দ্বিতীয় পর্যায়ে নায়ক তার কাজের ফলাফল দেখে অপরাধবোধে পূর্ণ হয়।  এবং তৃতীয় পর্যায়টি হল রাজনীতি  যা ওপেনহাইমারকে মোকাবেলা করতে হয়েছে।  পুরো সিনেমাটি রঙিন হলেও রাজনৈতিক অংশ সাদা-কালো রাখা হয়েছে।  এই তিনটি সময়কালে যা কিছু ঘটছে, তা সবই একে অপরের সাথে সংঘর্ষে লিপ্ত। .....বিস্তারিত পড়ুন

Roop Kishor Soni: একটি আংটিতে বিশ্বের আটটি আশ্চর্য তুলে ধরেছেন

উত্তরাপথঃ রাজস্থান মানেই ওজনদার রূপার গহনা ,আর তার উপর কারুকাজ। প্রচলিত এই ধারনা ভেঙ্গে আজ রূপোর গহনাকে আধুনিকতার সাথে শিল্পের এক অপূর্ব মেলবন্ধন ঘটিয়েছেন যে ব্যক্তি তিনি হলেন রূপ কিশোরী সোনী(Roop Kishor Soni)।তিনি ২০১৬ সালের ৯ ডিসেম্বর প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির কাছ থেকে তার অসাধারণ শিল্প কর্মের জন্য জাতীয় পুরুস্কার পান। রাজস্থানের জয়সলমেরের শহরের এই শিল্পী ৩.৮ গ্রাম ওজনের ০.৯ সেমি চওড়া রৌপ্য আংটিতে বিশ্বের আটটি আশ্চর্য খোদাই করেছেন।এই ছোট রূপার আংটিতে শিল্পী তাজমহল, সিডনি অপেরা হাউস, স্ট্যাচু অফ লিবার্টি, চীনের গ্রেট ওয়াল, আইফেল টাওয়ার, বিগ বেন, পিসার হেলানো টাওয়ার এবং মিশরীয় পিরামিডের চিত্র এক সাথে ফুটিয়ে তুলেছেন।এছাড়াও তিনি আরও দুটি পৃথক ডিজাইনের অত্যাশ্চর্য আংটি  তৈরি করেছেন।৮.৬ গ্রাম ওজনের একটি রিংয়ে তিনি সূর্যাস্তের সময় ভারতীয় উট সাফারি সহ ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলের বিভিন্ন ভারতীয় বিশেষত্ব ফুটিয়ে তুলেছেন,এবং অন্যটিতে বিভিন্ন হিন্দু দেব-দেবী ছবি এবং মন্দির খোদাই করেছিলেন। শিল্পী বলেছেন যে তিনি তার বাবার কাছ থেকে তার শৈল্পিক দক্ষতা উত্তরাধিকারসূত্রে পেয়েছেন। সেই সাথে তিনি বলেন "আমার বাবাও একজন জাতীয় পুরুস্কার প্রাপ্ত শিল্পী ছিলেন। তিনি আমাকে শিল্পের এই দক্ষতা শিখিয়েছিলেন কারণ তিনি পরবর্তী প্রজন্মের মধ্যে শিল্পের ফর্মটিকে বাঁচিয়ে রাখতে চেয়েছিলেন।" .....বিস্তারিত পড়ুন

সেলফির উচ্চ রেটিং কি আপনাকে আরওপাতলা হতে উৎসাহিত করছে ?

উত্তরাপথঃ সাম্প্রতিক একটি গবেষণায় দেখা গেছে যে সেলফি তোলা এবং নিজেকে পাতলা হিসাবে দেখানোর মধ্যে একটি সম্পর্ক থাকতে পারে। যুক্তরাজ্যের ইয়র্ক সেন্ট জন ইউনিভার্সিটির রুথ নাইট এবং ইউনিভার্সিটি অফ ইয়র্কের ক্যাথরিন প্রেস্টন সম্প্রতি PLOS ONE জার্নালে তাদের ফলাফল প্রকাশ করেছেন।সেখানে সেলফির উচ্চ রেটিং এবং আমাদের শরীরের গঠনের মধ্যে যোগসূত্র খোঁজার চেষ্টা করা হয়েছে।    বর্তমান সোশ্যাল মিডিয়ায় সেলফি হল এক জনপ্রিয় ছবি দেওয়ার ধরন। যিনি সেলফি তোলেন তিনি ক্যামেরাকে তাদের শরীর থেকে দূরে রেখে নিজেই নিজের ছবি তোলে। আগের গবেষণায় বলা হয়েছে সেলফিগুলি দেখার ফলে ছবির বিষয়গুলি সম্পর্কে দর্শকদের সিদ্ধান্ত প্রভাবিত হতে পারে। .....বিস্তারিত পড়ুন

Scroll to Top