জাপানের চাঁদ মিশন: চন্দ্রযান-3 থেকে কি আলাদা?

 উত্তরাপথঃ বহুল প্রত্যাশিত জাপানের চাঁদ মিশন যা SLIM (স্মার্ট ল্যান্ডার ফর ইনভেস্টিগেটিং মুন) নামে পরিচিত, স্থগিত করা হয়েছে, যা মহাকাশ উৎসাহী এবং বিজ্ঞানীদের হতাশ করেছে। মিশন, যা ২০২২ সালে শুরু হওয়ার কথা ছিল সেই সময় প্রযুক্তিগত সমস্যার কারণে এই মিশন পিছিয়ে যায়,এবার খারাপ আবহাওয়ার কারণে পিছিয়ে এল জাপান।সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে JAXA Tanegashima স্পেস সেন্টার থেকে ২৭ আগস্ট এই মিশনটি শুরু হওয়ার কথা ছিল ।  এই নিয়ে দু’বার চাঁদের পথে পা বাড়িয়েও  পিছিয়ে আসতে হল জাপানকে ।  

 ভারতের চন্দ্রযান-৩ চাঁদে নামার পরই চাঁদে পাড়়ি দেওয়ার পরিকল্পনা ছিল জাপানের। ভারতের মতোই এশিয়ার এই প্রযুক্তিপ্রেমী দেশও চায় চাঁদে মহাকাশ যান নামাতে। কিন্তু এরই মধ্যে দু’বার ভেস্তে গেল তাদের পরিকল্পনা। মঙ্গলবার জাপান জানাল, আপাতত সেপ্টেম্বরের আগে তাদের ‘চন্দ্রযান’ চাঁদে পাড়ি দেওয়ার কোনও সম্ভাবনা নেই। কারণ হিসাবে জাপানের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা জানিয়েছে, আসন্ন ঝড়ের ভয়েই এই সিদ্ধান্ত।

চাঁদে মহাকাশ যান নামাতে পারলে জাপান হবে এই কৃতিত্বের অধিকারী এশিয়ার তৃতীয় দেশ এবং পৃথিবীতে পঞ্চম। এর আগে চাঁদের জমিতে সফ্ট ল্যান্ডিং করতে পেরেছে যথাক্রমে রাশিয়া, আমেরিকা, চিন এবং ভারত। তবে জাপান ভারতের চন্দ্রযান-৩-এর মতো চাঁদের দক্ষিণ মেরুর কাছে অবতরণ করবে না। জাপানের ‘চন্দ্রযান’ নামের চাঁদের সামনের দিকে। অর্থাৎ যে অংশটি পৃথিবী থেকে দৃশ্যমান, সেখানে। চাঁদের বিষুব রেখার ১৩ ডিগ্রি দক্ষিণে এবং দ্রাঘিমা রেখার ২৫ ডিগ্রি পূর্বে রয়েছে শিওলি গিরিখাত। তারই ঢালু অংশে নামার কথা জাপানের চন্দ্রযানের।

তবে জাপানের চাঁদ মিশন এর মূল উদ্দেশ্য হল সঠিক চন্দ্র অবতরণ কৌশল প্রদর্শন করা। অর্থাৎ  চ্যালেঞ্জিং অবতরণ এলাকাগুলিকে আরও অ্যাক্সেসযোগ্য করে তুলতে  সফল অবতরণ কৌশল নির্মাণ করা । এবার আসা যাক জাপানের চাঁদ মিশন কিভাবে চন্দ্রযান-3 থেকে আলাদা? JAXA-এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট অনুসারে, জাপানের মুন মিশন, SLIM, যা Moon Sniper SLIM প্রজেক্ট নামেও পরিচিত।জাপানের এই মিশনটি ভারতের চন্দ্রযান-৩ থেকে আলাদা কিন্তু চন্দ্রযানের মতো ভবিষ্যতের চাঁদ অভিযানে সাহায্য করবে। SLIM হল একটি ছোট মাপের অন্বেষণ ল্যান্ডার যা চাঁদের পৃষ্ঠে পিনপয়েন্ট অবতরণে সক্ষম , সেই সাথে জাপান এই মিশনে চাঁদে অবতরণে ব্যবহৃত সরঞ্জামের আকার এবং ওজন  এই দুতি বিষয় হ্রাস করার উপর জোর দিয়েছে । সেই সাথে এটি  চাঁদের উৎস সম্পর্কে তদন্তের জন্য কম-মাধ্যাকর্ষণ পরিবেশে অন্বেষণের জন্য ডিজাইন করা হয়েছে। জাপানের এই মিশন সফল হলে ভবিষ্যতের  সৌরজগতের বৈজ্ঞানিক তদন্তের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ হিসাবে এটি বিবেচিত হবে

খবরটি শেয়ার করুণ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন


Vitamin-D: ভিটামিন ডি’র সেবন হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমায়

উত্তরাপথ: হার্ট অ্যাটাক এবং স্ট্রোক সহ কার্ডিওভাসকুলার রোগগুলি বর্তমানে বিশ্বব্যাপী মৃত্যুর একটি প্রধান কারণ।সম্প্রতি একটি ক্লিনিকাল ট্রায়ালে দেখা গেছে যে ভিটামিন ডি সম্পূরকগুলি ৬০ বছরের বেশি বয়সী লোকেদের হার্ট অ্যাটাক সহ যে কোনও বড় ধরনের কার্ডিওভাসকুলার অ্যাটাকের ঝুঁকি কমাতে পারে৷ গবেষণায় দেখা গেছে ভিটামিন ডি প্রায়ই "সানশাইন ভিটামিন" হিসাবে পরিচিত। এটি গ্রহণকারীদের মধ্যে স্ট্রোক সহ কার্ডিওভাসকুলার রোগ ৯% হ্রাস পেয়েছে । যা ২৮ জুন দ্য বিএমজে দ্বারা প্রকাশিত একটি ক্লিনিকাল ট্রায়ালে এই তথ্য প্রকাশিত হয়েছে। .....বিস্তারিত পড়ুন

Scroll to Top