পাম তেল কি আপনার জন্য খারাপ? আপনি কেন অলিভ অয়েল বেঁছে নেবেন?

উত্তরাপথঃ  সাম্প্রতিক বছরগুলিতে পাম তেলকে ঘিরে বিতর্ক তীব্র হয়েছে।আমরা প্রতিদিন  প্রায় সকলেই প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ ভাবে পাম তেল খাচ্ছি। আমাদের মধ্যে যারা একটু বেশী স্বাস্থ্য সচেতন তারা হয়ত সরাসরি রান্নাতে পাম তেল ব্যবহার করছেনা,পরিবর্তে জলপাই তেল (অলিভ অয়েল) এবং ক্যানোলা তেল ব্যবহার করছে। আবার একটা বড় অংশের লোক না জেনে হউক বা কম দামের জন্য হউক পাম তেল ব্যবহার করছে। প্রত্যক্ষ ভাবে যারা এটি খাচ্ছে না তাদের অধিকাংশ এই তেল খাচ্ছে কিন্তু পরোক্ষ ভাবে বিভিন্ন ফাস্ট ফুডের মাধ্যমে। আজ আমরা পাম তেলের সম্ভাব্য ত্রুটিগুলি নিয়ে আলোচনা করব এবং কেন বিকল্প হিসাবে জলপাই তেল বেছে নেওয়া স্বাস্থ্যকর বিকল্প সে সম্পর্কে আলোকপাত করব। এই বিষয়ে আমরা একজন ডায়েটিশিয়ান এম চৌধুরীর সাথে কথা বলেছি।

পাম তেল পাম গাছের ফল থেকে প্রাপ্ত। এটি বিভিন্ন খাদ্য পণ্য, প্রসাধনী, এমনকি জৈব জ্বালানীতে ব্যবহৃত হয়। উচ্চ উৎপাদনশীলতা এবং উৎপাদন খরচ কম হওয়ায় এটি জনপ্রিয়। স্বাস্থ্যের দৃষ্টিকোণ থেকে পাম তেলে প্রায় ৫০% স্যাচুরেটেড ফ্যাট এবং ৫০% “ভাল” ফ্যাট যেমন মনোস্যাচুরেটেড এবং পলিআনস্যাচুরেটেড ফ্যাটি অ্যাসিড রয়েছে যা “খারাপ” এলডিএল কোলেস্টেরল এবং ট্রাইগ্লিসারাইড বাড়াতে পারে। বেশী মাত্রায় এলডিএল কোলেস্টেরল এবং ট্রাইগ্লিসারাইড কার্ডিওভাসকুলার রোগ এবং স্ট্রোকের ঝুঁকির কারণ। সেইসাথে  এটি স্থূলতা এবং উচ্চ কোলেস্টেরলের মাত্রা বৃদ্ধির মত স্বাস্থ্য সমস্যার সাথে যুক্ত। বর্তমানে পাম তেল আমাদের খাদ্যে স্যাচুরেটেড ফ্যাটের একমাত্র উৎস নয়, এটিকে ব্যাপক ভাবে প্রক্রিয়াজাত খাবারের ব্যবহার করা হয়, যা আমাদের সামগ্রিক স্যাচুরেটেড ফ্যাট গ্রহণে একটি উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করে।

অন্যদিকে, জলপাই তেল, বিশেষ করে অতিরিক্ত ভার্জিন অলিভ অয়েল, মনোস্যাচুরেটেড ফ্যাট সমৃদ্ধ, যা হার্টের জন্য স্বাস্থ্যকর বলে বিবেচিত হয়। গবেষণায় ধারাবাহিকভাবে দেখানো হয়েছে যে মনোস্যাচুরেটেড ফ্যাট কোলেস্টেরলের মাত্রা উন্নত করতে, প্রদাহ কমাতে এবং হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করতে পারে। পাম তেলের চেয়ে জলপাই তেল বেঁছে নেওয়া সেই সমস্ত মানুষদের জন্য উপযোগী হতে পারে যারা তাদের কার্ডিওভাসকুলার স্বাস্থ্য সম্পর্কে উদ্বিগ্ন।

অলিভ অয়েলে উচ্চ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সামগ্রী রয়েছে। অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলি আমাদের কোষগুলিকে ফ্রি র‍্যাডিকেলের কারনে ক্ষতি থেকে রক্ষা করতে সাহায্য করে ।সেই সাথে এটি উন্নত কার্ডিওভাসকুলার স্বাস্থ্য,ভাল জয়েন্ট এবং মস্তিষ্কের স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী।

বর্তমানে যদিও বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানে পাম তেল ব্যবহার করা হয়, তবু প্রতিদিনের ব্যাহারের জন্য অলিভ অয়েল, অ্যাভোকাডো তেল বা ক্যানোলা তেলের মতো কোনও তেল বেছে নেওয়া একটি স্বাস্থ্যকর বিকল্প হতে পারে ।

বি.দ্রঃ-পেশাদার চিকিৎসকের সাথে পরামর্শ করা এবং ব্যক্তিগত প্রয়োজনের ভিত্তিতে পদ্ধতিকে ব্যক্তিগতকৃত করা গুরুত্বপূর্ণ।

খবরটি শেয়ার করুণ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন


প্রয়াত "কালবেলা"-র স্রষ্টা সাহিত্যিক সমরেশ মজুমদার

উত্তরাপথ: সাহিত্য একাডেমি পুরুষ্কার প্রাপ্ত প্রখ্যাত সাহিত্যিক সমরেশ মজুমদার কলকাতার এক বেসরকারী হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৯ বছর।বেশ কিছুদিন ধরে তিনি ফুসফুস ও শ্বাসনালীর সংক্রামণের কারনে তিনি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। ১৯৪২ সালে উত্তরবঙ্গের গয়েরকাটায় জন্ম এই বিখ্যাত লেখকের।ষাটের দশকের গোড়ায় তিনি কলকাতায় এসেছিলেন। ভর্তি হয়েছিলেন স্কটিশ চার্চ কলেজের বাংলা (সাম্মানিক) স্নাতক বিভাগে৷ এর পর স্নাতকোত্তর  সম্পন্ন করেন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। সমরেশ মজুমদারের উল্লেখযোগ্য .....বিস্তারিত পড়ুন

Scroll to Top